তনুজ জৈনঃ মালদা উত্তর লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত মালতীপুর বিধানসভা কেন্দ্রের ভোট চেহারা একটু খুঁটিয়ে দেখলে জাহাঙ্গীর আলমদের পদক্ষেপকে হাস্যকর মনে না ও হতে পারে।  জাহাঙ্গীররা সেখানে একটি কাঁচা ঘরকে দলীয় দফতর ঘোষণা করেছেন। নাম বলছেন, নির্দল পার্টি। স্লোগান দিচ্ছেন- খেলা হবে। 

২০১১ সালের ভোটে মালতীপুর কেন্দ্রে জিতছিলেন আরএসপি-র আব্দুর রহিম বক্সী। দ্বিতীয় স্থানে ছিলেন আল বিরুণী। তিনি ছিলেন নির্দল। ২০১৬ সালের ভোটে কংগ্রেস এই আসনে জেতে। আরএসপি-র আব্দুর রহিম বক্সীকে হারিয়েছিলেন যে কংগ্রেস প্রার্থী, তিনি সেই আল বিরুণী। ২০২১ সালের ভোটে আবার প্রার্থী হয়েছেন বক্সী। তবে এবার তৃণমূল কংগ্রেসের হয়ে। ২০১৯ সালে তিনি দল পাল্টে ফেলেছিলেন। 

নির্দল প্রার্থী, এই বিধানসভায় একেবারে এলেবেলে নন, তা উপরের পরিসংখ্যান থেকে কিছুটা স্পষ্ট হবার কথা। সম্ভবত এই তথ্যের উপর ভর করেই মালতীপুর বিধানসভা কেন্দ্রের এক-দুশো যুবক পার্টি অফিস খুলে ফেললেন। তাঁদের দাবি, তারা ভোটে দাঁড়াবেন। তাঁদের অভিযোগ, এলাকার কংগ্রেস বিধায়ক কোনও কাজ করেননি। 

জাহাঙ্গীরের বক্তব্য, এলাকায় কোনও উন্নয়ন হয়নি। তিনি জানিয়েছেন, এলাকার মানুষদের পাশে তাঁরা রয়েছেন, এবং এলাকার মানুষও তাঁদের সঙ্গে রয়েছেন। সাদা নিশানের এই নির্দল পার্টির এখনও কোনও প্রার্থী স্থির হয়নি। এবারের ভোটে তাঁরা লড়বেন জানিয়ে জাহাঙ্গীরের বক্তব্য, যাঁকে মানুষ টিকিট দেবার কথা বলবেন, তাঁকেই এই নির্দল পার্টির প্রার্থী করা হবে।