মন্ত্রিত্ব থেকে ইস্তফার পরেই রাজভবনের বাইরে এসে কান্নায় ভেঙে পড়লেন প্রাক্তন বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্য়োপাধ্য়ায়। মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ আনার পাশপাশি কৃতজ্ঞতাও প্রকাশ করেছেন তিনি। যদিও ইস্তফার পরপরেই তাঁর বিজেপি যোগ নিয়ে সম্ভাবনা বাড়ছে। সেক্ষেত্রে আরও কিছু কথা বেরিয়ে আসতে পারে বলে মত রাজনৈতিক মহলের।

 

 

মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে রাজীব অভিযোগ করে বলেছেন, আড়াই বছর আগে আচমকাই তাঁকে সেচমন্ত্রীর পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়। কিন্তু ,সেকথা তাঁকে জানানোর সৌজন্যটুকু দেখাননি মমতা। টিভি-তে ব্রেকিং নিউজে দেখতে হয়েছিল যে আমাকে সেচ দফতর থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল। তৃণমূল ভবনে গিয়ে সেকথা আমি জানতে পেরেছিলাম। সেদিন আমি দলীয় কর্মীদের সামনে অপ্রস্তুত হয়ে পড়েছিলাম।'

 

 

 এরপরেই রাজীব মন্ত্রিত্ব ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। এবিষয়ে রাজীব বন্দ্য়োপাধ্য়ায় ক্ষোভের সহিত জানিয়েছেন, 'আড়াই বছর আগেই ভেবেছিলাম পদত্যাগ করব। সেই সময় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায় আটকেছিলেন।' তাই এবার মনকষ্ট নিয়ে দল ছাড়ালেন তিনি। গত এক মাস ধরে অনেক কিছু কথা শুনেছি, কথা গুলি আহত করেছে আমায়। তাই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি', বলে জানিয়েছেন রাজীব বন্দ্য়োপাধ্যায়। এরপরেই কান্নায় ভেঙে পড়েন রাজীব বন্দ্য়োপাধ্য়ায়। যদিও যার উপর এত ক্ষোভ, সেই মুখ্যমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে রাজীব বন্দ্য়োপাধ্যায় জানিয়েছেন, তার জীবনে মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায়ের বিরাট অবদান রয়েছে। সেজন্য তিনি মমতার কাছে চির কৃতজ্ঞ থাকবেন।