কেন্দ্রীয় কৃষি আইনের বিরোধিতায় বুধবার রাস্তায় নেমেছিল জমিয়তে উলেমায় হিন্দ। নেতৃত্বে ছিলেন মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী। সেই অবরোধ কর্মসূচি ঘিরে তুলকালাম কাণ্ড ঘটে গেল বর্ধমানের গলসিতে। জাতীয় সড়ক অবরোধ ঘিরে দফায় দফায় উত্তেজনা ছড়ায়। মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী কর্মী সমর্থকদের আইন না ভাঙার পরামর্শ দিলেও কেউ কর্ণপাত করেননি। শেষমেষ নিজেই লাঠি হাতে পরিস্থিতি সামাল দিতে নামেন খোদ মন্ত্রী।

বুধবার বর্ধমানের গলসির গলিগ্রামে কৃষি আইনের বিরোধিতায় অবরোধ করেছিল জমিয়তে উলেমায় হিন্দ। দু নম্বর জাতীয় সড়কের উপর দেড় ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে অবরোধ চলে। প্রাথমিকভাবে ঠিকছিল মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী রাস্তার ধারে সভা করবেন। তার অগে আধ ঘণ্টা প্রতিকি অবরোধের কর্মসূচি নেওয়া হয়। কিন্তু, মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী গলিগ্রামে পৌঁছানোর আগেই রাস্তা অবরোধ শুরু করে দেন উলেমায় হিন্দের সমর্থকরা। ঘটনার জেরে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয় দুই নম্বর জাতীয় সড়কে।

দলীয় কর্মী সমর্থকদের রাস্তা অবরোধ তুলতে বললেও কেউ কর্ণপাত করেননি। কাজের কাজ না হওয়ায় লাঠি হাতে নিজেই পরিস্থিতি সামাল দিতে নামেন খোদ মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী। কিন্তু তাতেও কাজ না হওয়ায় অবশেষে নিজেও অবরোধে সামিল হন মন্ত্রী। রাস্তার গাড়ির মাথায় চেপে অবরোধে সামিল হন। কেন্দ্রীয় নীতির বিরোধিতা করে মোদী সরকারের সমালোচনা করেন মন্ত্রিী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী।