শীতলকুচি ইস্যুতে বিজেপির রাজ্যসভাপতি দিলীপ ঘোষের মন্তব্য নিয়ে আবারও শোরগোল রাজ্যরাজনীতিতে। বরানগরের ভোট প্রচারে গিয়ে শীতলকুচিতে চার তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীর মৃত্যু নিয়ে রীতিমত বিস্ফোরক মন্তব্য করেন দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন 'শীতলকুচিতে কী হয়েছে দেখেছেন তো ? বাড়াবাড়ি করলে সব জায়গায় শীতলকুচি হবে।' দিলীপ ঘোষের এই মন্তব্যের তীব্র বিরোধিতা করেন তৃণমূল কংগ্রেস নেতা সৌগত রায় ও সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী। 

শীতকুচিতে পঞ্চম ব্যক্তির মৃত্যু নিয়ে চুপ কেন মমতা, ভোটের রাজনীতি করছেন বললেন অমিত শাহ ...
কী বলে ছিলেন দিলীপ ঘোষঃ 
বরানগরের বিজেপি প্রার্থী পার্ণো মিত্রর হয়ে নির্বাচনে প্রচারে গিয়েছিলেন দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেছিলেন, 'এত দুষ্টু লোক এল কোথা থেকে? ওই দুষ্টু ছেলেরা থাকবে না বাংলা। সবে শুরু হয়েছে। এটা সারা বাংলায় হবে। যাঁরা ভেবেছেন বাহিনী বন্দুকটা দেখানোর জন্য এনেছে তাঁরা ভুল করছেন। বাহিনী বন্দুক দেখাতে আসেনি। কেউ যদি আইন হাতে তুলে নেয় তবে তার যোগ্য জবাব দিতে হবে।' তারপরই দিলীপ ঘোষ পঞ্চম দফা নির্বাচন প্রসঙ্গে কিছুটা হুমকির সুরে বলেন, ১৭ এপ্রিল ভোট দিতে যান। বাহিনী থাকবে। ভোট দিতে না পারলে 'আমরা আছি'। শীতলকুচিতে কী হয়েছে দেখেছেন তো? বাড়াবাড়ি করলে জায়গায় জায়গায় শীতলকুচি হবে বলেও হুমকি দেন 

করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে দৈনিক পরিসংখ্যন আকাশ ছোঁয়া, সেই সময়ই দেশে শুরু 'টিকা উৎসব' ...

সৌগত রায়-
দিলীপ ঘোষের এই মন্তব্যের তীব্র বিরোধিতা করেন তৃণমূল কংগ্রেস নেতা সৌগত রায়। তিনি প্রশ্ন তোলেন, রাজ্যে পাঁচ জন লোক মারা যাওয়ার পরে এজাতীয় কথা কেউ বলতে পারে? বাংলার মানুষ বুঝে গেছে বিজেপি পরিকল্পনা করে কেন্দ্রীয় বাহিনীকে দিয়ে ভোটারদের হত্যা করিয়েছে। আবারও তিনি অমিত শাহর পদত্যাগ দাবি করেন। তিনি বলেন গোটা পরিকল্পনাই করেছেন অমিত শাহ। একই সঙ্গে তিনি বলেন এজাতীয় মন্তব্য করাতেই দিলীপ ঘোষ অভ্যস্ত। তিনি ফ্যাসিস্ট পার্টির কর্মী তা তাঁর কথা থেকেই স্পষ্ট হয়ে যায়। 

'মোদী-শাহ হত্যাকারী', শীতলকুচির ঘটনায় অমিত শাহর পদত্যাগ দাবি করে বলল তৃণমূল ...

সুজন চক্রবর্তী-
দিলীপ ঘোষের মন্তব্যের কড়া প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী। তিনি বলেন, বিজেপি নেতা মৃত্যুর কারবারি হতে চায়। তার সঙ্গে যদি বিভাজনের গন্ধ পায় তাহলে আরও উৎসাহিত হয়ে ওঠে। বিজেপিকে অসভ্য বর্বর বলেও সমালোচনা করেন। তিনি আরও বলেন দিলীপ ঘোষের থেকে এজাতীয় মন্তব্যের বেশি আর কিছুই আশা করা যায় না। তাঁর এই মন্তব্য অগণতান্ত্রিক ও ফ্যাসিস্ট মনোভাবের বহিপ্রকাশ ছাড়া আর কিছুই হতে পারে বলেও জানিয়েছেন সুজন।