নির্বাচন ঘোষণা হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই রাজ্যে লাগু হয়ে গিয়েছে নির্বাচনী আচরণ বিধি। কলকাতা থেকে জেলা বিভিন্ন জায়গায় শুরু হয়েছে কেন্দ্রীয় বাহিনির রুট মার্চও। এরই মধ্যে বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতির 'খেলা হবে' স্লোগান ২০২১ বিধানসভা অন্য জায়গা করে নিয়েছে। যা নিয়ে বিতর্কও কম হচ্ছে না। তবে এবার 'খেলা হবে' স্লোগান নয়, নির্বাচনী প্রচারে সরাসরি ভোটারদের হুমকি দিয়ে বিতর্কে জড়ালেন চোপড়া বিধানসভা কেন্দ্রের তৃনমূল কংগ্রেসের বিদায়ী বিধায়ক হামিদুল রহমান।

"

মঙ্গলবার উত্তর দিনাজপুরের চোপড়া বিধানসভার আলোরানি ময়দানে তৃনমূল কংগ্রেসের নির্বাচনী জনসভা ছিল। সেখানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে হামিদুল রহমান ভোটারদের কার্যত হুমকির সুরে তৃণমূল কংগ্রেসকে যারা ভোট দেবে না, নির্বাচনের পর তাদের দেখে নেওয়ার কথা বলেন তিনি। হামিদুল রহমান বলেন,' মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়ন ঘরে ঘরে পৌছে গিয়েছে। আর যারা বেইমানি করেন ভোটের পড়ে তাদের সঙ্গে দেখা হবে।' তৃণমূল বিধায়কের এই মন্তব্যের পরই তৈরি হয় নয়া বিতর্ক। যা নিয়ে সরব হয়েছে জেলার বিরোধীরা।

"

জনসভা শেষে তার বক্তব্যের জন্য যে কোনও অনুশোচনা নেই, তাও বুঝিয়ে দেন হামিদুল রহমান। সাংবাদিকদের প্রশ্নে বলেন,'তার বক্তব্যকে ভাল মানুষ ভাল ভাবে নেবেন, আর খারাপ মানুষ খারাপ ভাবে নেবেন।ভোটের পরে তো দেখা হবেই। এত উন্নয়নের পরেও যদি কেউ বেইমানি করে তবে তাদের জন্য খেলা হবে।' তৃণমূল নেতার এই মন্তব্যের পর বিরোধী জোটের নেতা পার্থ ঘোষ বলেন,'এই বক্তব্যের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ জানাবো। হামিদুলের পায়ের তলায় মাটি সরে গেছে। তাই ভোটারদের হুমকি দিয়েছেন।'