তাপস দাস- বাহাত্তুরে বললে যে ছবি চোখের সামনে ভাসে, তা একেবারেই খাটে না অশোক ভট্টাচার্যের চেহারা দেখলে। অঙ্কের হিসেবে কিন্তু তাঁর বাহাত্তর বছর বয়স হল, তবু। তিনি শিলিগুড়ির মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে পরিচিত ছিলেন বাম আমলের একটা সময়ে। ১৯৯১ থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত টানা শিলিগুড়ির বিধায়ক ছিলেন তিনি। বামপতনের বছরে, ২০১১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে তাঁর হার হয় বটে, কিন্তু ২০১৬-র ভোটে তিনি ফের দখল করেন সে বিধানসভা। ১৯৯৬ সালে, জ্যোতি বসু মন্ত্রিসভায় তিনি পুর ও নগরন্নোয়ন দফতরের দায়িত্বভার পেয়েছিলেন। বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের আমলেও তিনি মন্ত্রী ছিলেন। 

আরও পড়ুন-  রাসবিহারী কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী বালাকোট হামলার নেপথ্য নায়ক সুব্রত সাহা

তবে এসবের চেয়েও বেশি যে কারণে তিনি সাম্প্রতিক রাজনীতিতে উল্লেখযোগ্য থেকেছেন, তা হল বাম-কংগ্রেস জোট। শিলিগুড়ি পুরসভায় তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে কংগ্রেসের সঙ্গে তিনি যখন জোট করেছিলেন, তখন রাজ্যে বাম-কংগ্রেস জোট হয়নি। সে ২০১৬ সালের বিধানসভা ভোটেরও আগের সময়। তখন রাজ্যের রাজনৈতিক মানচিত্রে পদ্ম ফুটছে সামান্য, কিন্তু রমরমা জোড়া ফুলেরই। সেই সময়েই প্রধান শত্রুর বিরুদ্ধে অপ্রধান শত্রু নির্বাচন করে অশোক ভট্টাচার্য বার্তা দিয়েছিলেন নিজের দলের কাছে, রাজ্যের জনগণের কাছেও। রাজনৈতিক পরিদর্শক ও বিশ্লেষকদের অনেকেই মনে করেন, পরপর দুটি বিধানসভা নির্বাচনে বাম-কংগ্রেস জোটের বীজ বপন করেছিলেন অশোক ভট্টাচার্যই। 

আরও পড়ুন- বিজেপি যোগের দু'বছর পর টিকিট, তৃণমূলের হেভিওয়েট প্রার্থীর বিপরীতে কি জয়ী হতে পারবেন পার্ন 

আদ্যন্ত ক্রিকেটপ্রেমী অশোক ভট্টাচার্যের সঙ্গে প্রাক্তন ভারতাধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের সম্পর্কের কথা সুবিদিত। সে সম্পর্কের জোর এতটাই যে সৌরভের সঙ্গে কলকাতায় এসে দেখা করে তাঁকে বিজেপিতে যোগ দিতে নিষেধ করতে পারেন প্রাক্তন এই বাম মন্ত্রী। ২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে তাঁর বিরুদ্ধে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী দাঁড় করিয়েছিল ভারতীয় ফুটবল দলের প্রাক্তন অধিনায়ক বাইচুং ভুটিয়াকে। কিন্তু শিলিগুড়ির গড় আগলাতে পারেননি বাইচুং। 

আরও পড়ুন-  রসেবশে থাকা রাজনীতিবিদ মদন মিত্রের রাজনৈতিক কেরিয়ার অভূতপূর্ব মোডে় দাঁড়িয়ে 

২০২১ সালেও তাই শিলিগুড়ির প্রাক্তন মেয়রে ভরসা রাখছে বাম-কংগ্রেস-আইএসএফ জোট। এশিয়ানেট বাংলাকে দেওয়া এক একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ২০২১-এর পশ্চিমবঙ্গ নির্বাচন দেশের পথপ্রদর্শক হতে পারে। অশোক ভট্টাচার্য বলেছেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বা প্রধানমন্ত্রী বাংলার সংস্কৃতি, ঐতিহ্য, পরম্পরা সম্পর্কে কিছু জানেন না। মমতার উদ্দেশে তোপ দেগে তিনি বলেন, রাজ্যে অধিষ্ঠিত তৃণমূল কংগ্রেস সরকার ভাতার রাজনীতি করছে। 

"

হলফনামা থেকে জানা যাচ্ছে অশোক ভট্টাচার্যের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা রয়েছে মোট ৯টি। ২০১৩ সালে তিনটি, ২০১৪ সালে একটি ও ২০১৫ সালে পাঁচটি মামলা তাঁর বিরুদ্ধে দায়ের হয়। এর মধ্যে হত্যার চেষ্টার মামলাও রয়েছে। অশোক ভট্টাচার্যের বিরুদ্ধে শিলিগুড়ি কেন্দ্রে প্রার্থী হয়েছেন কংগ্রেস থেকে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেওয়া ওমপ্রকাশ মিশ্র। এই কেন্দ্রে বিজেপির প্রার্থী শংকর ঘোষ। শিলিগুড়িতে ভোট হবে পঞ্চম দফায়, ১৭ এপ্রিল।