বুদ্ধদেব পাত্র, পুরুলিয়া-২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনের পর পুরুলিয়ার সুখা মাটিতে শক্তি বৃদ্ধি করেছে বিজেপি। তারপর থেকেই বদলে যায় জেলার রাজনৈতিক চালচিত্র। প্রতিবেশী রাজ্য ঝাড়খন্ড লাগোয়া জেলায় বিজেপির অভাবনীয় উথ্থানে চিন্তায় ফেলেছে ঘাসফুল শিবিরকে। এই অবস্থায় করোনা আবহের মধ্য়েও জোরকদমে চলছে দলবলের প্রতিযোগিতা। বিজেপি থেকে তৃণমূল। আবার তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যোগদানের প্রক্রিয়া চলছে জোরকদমে। একুশের বিধানসভা নির্বাচনের আগে নিজেদের হারানো মাটি ফিরে পেতে কোমর বেঁধে নেমেছে তৃণমূল নেতৃত্ব।

এই পরিস্থিতিতে টানা তিন দিনের দলীয় কর্মসূচিতে পুরুলিয়ায় গিয়েছেন অভিনেতা সোহম চক্রবর্তী।     বাংলার যুবশক্তি মোর্চার কর্মসূচিতে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের নির্দেশে সংগঠনের সদস্যদের সঙ্গে আলোচনা করছেন তিনি। পুরুলিয়া জেলায় তৃণমূলের অবস্থান কোথায়? কীভাবে এগোলে পুরনো মাটি ফিরে পাওয়া যাবে? এসব নিয়ে যুবশক্তি মোর্চার সদস্যদের সঙ্গে চলছে পুঙ্খানুপুঙ্খ আলোচনা। সংগঠনের সদস্যদের সঙ্গে রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেন সোহম। এদিন রঘুনাথপুর শহর, নিতুড়িয়া, সাঁতুড়ি ব্লকে আলোচনা করেন অভিনেতা তথা তৃণমূল নেতা সোহম। যুবশক্তির ফিল্ড মেম্বার ও ডিসি মেম্বারদের সঙ্গে চলে দীর্ঘক্ষণ আলোচনা।

আরও পড়ুন-আসন্ন বিধানসভা ভোটে ২২০টি আসন পেয়ে সরকার গড়বে বিজেপি, দাবি শাহর সমীক্ষা রিপোর্টে

১৩ সেপ্টেম্বর থেকে পুরুলিয়ায় শুরু হয়েছে বাংলার যুবশক্তি মোর্চার কাজ। চলবে ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। মূলত পাঁচটি বিষয়ের উপর বিশি জোর দেওয়া হয়েছে। কী পেয়েছি? কী পায়নি? কোনটা বেশি প্রয়োজন? করোনা পরিস্থিতিতে কী অবস্থা রয়েছেন সাধারণ মানুষ? গত জুন মাস থেকে পুরুলিয়ায় শুরু হয়েছে বাংলার যুবশক্তি মোর্চার কাজ। তৃণমূল স্তর থেকে পুঙ্খাপুঙ্খ রিপোর্ট জেলা পরিষদের সভাপতিকে দিচ্ছেন সংগঠনের সদস্যরা।  
 আরও পড়ুন-পাশের জঙ্গলে ঘাঁটি গেড়েছে হাতির দল, ফসল বাঁচাতে হাতে মশাল নিয়ে রাত পাহারায় জঙ্গল লাগোয়া চাষিরা
যুবশক্তি মোর্চার সদস্যদের সঙ্গে বৈঠকের পর অভিনেতা সোহম বলেন, বাংলার যুবশক্তি মোর্চার কর্মসূচিতে মোট ছয়টি জেলার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে তাঁকে। সঙ্গে রয়েছেন নির্মাল্য চক্রবর্তী ও শান্তনু বন্দ্য়োপাধ্য়ায়। মানুষের কাছে পৌঁছতে জোরকদমে কাজ চলছে বলে জানালেন তৃণমূল নেতা।