বছরভর প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে সীমান্তে পাহারা দেন। কিন্তু বিপদ যে বাড়িতেই ওত পেতে ছিল, তা কে জানত! বাড়ির পাঁচিল ভেঙে মারা গেলেন এক বিএসএফ জওয়ান। ঘটনায় শোকের ছায়া হুগলির পোলবায়। 

মৃতের নাম গোবিন্দপদ মাঝি। বাড়ি, হুগলির পোলবার কচুয়া গ্রামে। বিএসএফের ১৫৯ নম্বর ব্যাটেলিয়নের হেড কনস্টেবল ছিলেন গোবিন্দপদবাবু। কর্মসূত্রে থাকতেন মিজোরামে। পরিবারের লোকের জানিয়েছে, মুর্শিদাবাদে বদলি হওয়ার কথা ছিল ওই বিএসএফ জওয়ানের।  মাস দুয়েকের ছুটি নিয়ে গ্রামের বাড়িতে এসেছিলেন মহালয়ার দিন।  ভেবেছিলেন, একতলা বাড়িটি দোতলা করেই ফের কাজে যোগ দেবেন। কিন্তু, তা হল কই! বাড়ি লাগোয়া পাঁচিল ভেঙে প্রাণ হারালেন বিএসএফ জওয়ান গোবিন্দপদ মাঝি।

কীভাবে ঘটল এমন অঘটন? স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, ঢালাইয়ের জন্য বাড়ির পাঁচিলের কাছেই পাথর রাখা ছিল। সোমবার সকালে নিজেই পাথরগুলি একজায়গায় জড়ো করে রাখছিল গোবিন্দপদ মাঝি। ঠিক তখনই হুড়মুড়িয়ে পাঁচিলটি ভেঙে পড়ে। মাথায় গুরুতর আঘাত পান ওই জওয়ান। তড়িঘড়ি তাঁকে হাসপাতালে পরিবারের লোকেরা। কিন্তু ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে গিয়েছে। চিকিৎসকরা গোবিন্দপদ মাঝিকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। ঘটনা শোকের নেমেছে পোলবার কুচয়া গ্রামে। শোকের পাথর হয়ে গিয়েছেন মৃতের পরিবারের লোকেরা।