ভেঙ্গে গিয়েছে দুর্গাপুর ব্যারেজের ৩১ নম্বর গেট। এর জেরে প্রবল জল সংকট তৈরি হতে পারে রাজ্যের দুই জেলায়। সেই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে পশ্চিম বর্ধমান কিংবা বাঁকুড়া জেলার মানুষদের আশ্বস্ত করলো রাজ্য সরকার। রবিবার রাতে নবান্নের পক্ষ থেকে পরিসংখ্যান দিয়ে রাজ্য সরকার জানিয়ে দিয়েছে, জল সমস্যা মেটাতে তারা সব রকম ভাবে প্রস্তুত। কেবল তাই নয়, আপদকালীন পরিস্থিতি তৈরি হলে কিভাবে তার মোকাবিলা করা হবে সে ব্যাপারেও সম্পূর্ণ রকম প্রস্তুতি সেরে ফেলেছে রাজ্য সরকার।  

আরও পড়ুন- ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার বিজেপি কর্মীর মৃতদেহ, খুনের অভিযোগ নিয়ে রাজনৈতিক তরজা

পশ্চিম বর্ধমানের জল সমস্যা মেটাতে পরিসংখ্যান দিয়ে রাজ্য সরকার জানিয়েছে পশ্চিম বর্ধমান জেলার জন্য ১ লক্ষ ২৫ হাজার জলের পাউচ তৈরি করা হয়েছে। কেবল তাই নয় বাড়তি ৫০ হাজার পাউচ রাখা হয়েছে। চারটি মোবাইল ট্রিটমেন্ট ইউনিট তৈরি করা হয়েছে যার মাধ্যমে দিয়ে পশ্চিম বর্ধমান জেলার বিভিন্ন জায়গায় প্রতি ঘন্টায় জলের কুড়ি হাজার পাউচ তৈরি করা হবে। 

আরও পড়ুন- রাস্তায় দাপিয়ে বেড়াচ্ছে জনাদশেক ভূতের একটি দল, তাঁদের আন্তরিকতায় মুগ্ধ শহরবাসী

বাঁকুড়া জেলার তিনটি গুরুত্বপূর্ণ ব্লকের জন্য ৩৬টি জলের ট্যাঙ্কার নিয়ে যাওয়া হয়েছে। যার মাধ্যমে  এলাকার মানুষদের জল সরবরাহ করা হবে। একই সঙ্গে তিনটি মোবাইল ট্রিটমেন্ট ইউনিট বসানো হয়েছে। যার মাধ্যমে দিয়ে প্রতি ঘন্টায় ১৫ হাজার জলের পাউচ তৈরি করা হবে। রবিবার নবান্ন থেকে জানানো হয়েছে, বাঁকুড়া জেলার জন্য ৪০ হাজার জলের পাউচ ইতিমধ্যেই রাখা আছে আপদকালীন পরিস্থিতি মোকাবিলা করার জন্য। রাজ্য সরকারের নজরদারি রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে সমস্ত পরিস্থিতির উপর নজরদারি চালানো হচ্ছে। রাজ্যস্তরে হোক কিংবা জেলাস্তরেও নজরদারি অব্যাহত রয়েছে। জলের কোনরকম সমস্যা তৈরি হলে তার মোকাবিলায় দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।