কালীপুজোর আগে প্রাকৃতিক দুর্যোগ। নাগাড়ে বৃষ্টি হচ্ছে কলকাতা ও আশেপাশের এলাকায়। বৃহস্পতিবার সকালে রাস্তার পাশে নির্মীয়মাণ একটি বৈদ্যুতিক ঘুঁটি হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ল চলন্ত অটোর উপর। ঘটনার আহত হয়েছেন অটোর চালক-সহ ছয়জন।  অটো চালকের অবস্থা গুরুতর, তাঁকে কলকাতায় পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।  দুর্ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার মহেশতলার থানার বদ্দির বাদ এলাকায়।

দুর্গাপুজোতে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হয়েছে। কালীপুজোতেও বৃষ্টি হবে না তো? তেমন কোনও সম্ভাবনা নেই। অন্তত আবহাওয়া দপ্তর তো তেমনই পূর্বাভাস দিয়েছে। কিন্তু, ঘটনা হল, বুধবার রাত থেকে কলকাতা-সহ গোটা রাজ্যেই আকাশের মুখভার। মুষলধারায় না হলেও, ঝিরঝিরে বৃ্ষ্টি থামছে না। প্রাকৃতিক দুর্যোগ মাথায় নিয়ে কালীপুজো প্রস্তুতিতে ব্যস্ত উদ্যোক্তারা। এরইমধ্যে আবার দুর্ঘটনা ঘটল দক্ষিণ ২৪ পরগনার মহেশতলায়। 

বৃহস্পতিবার সকালে বজবজ ট্যাঙ্ক রোড দিয়ে পাঁচজন যাত্রী নিয়ে যাচ্ছিল মোল্লারগেট-আছিপুর রুটের একটি অটো।  বজবজ এএসআই হাসপাতালে কাছে বদ্দির বাস এলাকায় রাস্তার পাশে বিদ্যুতের খুঁটি লাগাচ্ছিলেন পুজো উদ্যোক্তারা। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, অটোটি যখন বদ্দির বাস এলাকায় পৌঁছয়, তখনই আচমকাই হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে বিদ্যুতের খুঁটিটি। দুর্ঘটনার জেরে অটোটি দুমড়েমুচড়ে গিয়েছে। গুরুতর আহত হয়েছেন চালক-সহ ছয়জন। স্থানীয় বাসিন্দাদের তড়িঘড়ি আহতদের উদ্ধার করে নিয়ে যান বজবজ ইএসআই হাসপাতালে। বাকিদের প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হলেও, চালকে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। তাঁর চোট গুরুতর বলে জানা গিয়েছে। 

এদিকে দুর্ঘটনাগ্রস্থ অটোর চালকের দাবি, আরও বড় দুর্ঘটনা ঘটতে পারত। শেষবেলায় তিনি অটোটি একটু ঘুরিয়ে নিতে পেরেছিলেন। তাই অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছেন সকলেই, প্রাণহানির ঘটনা ঘটে। কালীপুজোর উদ্যোক্তাদের কাছে ক্ষতিপূরণ ও চিকিৎসার খরচ দাবি করেছেন ওই অটো চালক।