রবিবার অর্জুন সিং-এর সঙ্গে হাওড়ায় একটি সভায় গিয়েছিলেন বিজেপি নেতা মণীশ শুক্লা। সভা সেরে ফেরার পথেই টিটাগড় থানায় সামনের বিজেপি পার্টি অফিসে যাচ্ছিলেন তিনি। সেই সময় একদল দুষ্কৃতী বাইকে চেপে এসে হঠাৎই হামলা চালায় মণীশ শুক্লার উপর। বিজেপি পার্টি অফিসের সামনেই এলোপাথাড়ি গুলি ছোঁড়ে দুষ্কৃতীরা। এই ঘটনায় গুলি লাগে মণীশ শুক্লার ঘাড়ে ও মাথায়। কলকাতার এক বেসরকারী হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিত্সকরা। 

 

এই ঘটনার জেরে উত্তপ্ত বারাকপুর। এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়-এর উদ্দেশ্যে তীব্র নিন্দা করেছে দলের একাধিক সদস্য-নেতৃত্ব স্থানীয়। এই ঘটনার বিষয়ে তীব্র নিন্দা করে বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে লিখেছেন, "আমার ভাইয়ের মত ছিল মণীশ শুক্লা। সব সময় আমার সঙ্গ দিয়েছে ঢালের মতো। এই বাংলার জন্য শহীদ হয়েছে মণীশ, ওর এই বলিদান কখোনও ভোলায় নয়। পুলিশ-কে এই কর্মফল ভোগ করতে হবে।" এই ঘটনা "তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীলরা জড়িত" বলে জানিয়েছেন তিনি।

মণীশ শুক্লা হত্যা কাণ্ডের জেরে সোমবার ১২ ঘন্টা বারাকপুর বনধের ডাক দিয়েছে বিজেপি। পরিস্থিতি সামাল দিতে বিশাল পুলিশ বাহিনী নামানো হয় বিটি রোড (বারাকপুর-টিটাগড়)। অন্যদিকে এই ঘটনার জেরে সোমবার সকাল ১০ টার মধ্যে স্বরাষ্ট্রসচিব, ডিজিপিকে সমন পাঠিয়ে দেখা করার নির্দেশ দিয়েছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। এই ঘটনাকে তিনি আইনশৃঙ্খলার অবনতির বিষয় বলে জানিয়েছেন।