আজ রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠি রাজভবনে চারটি মুখ্য রাজনৈতিক দলের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন। তৃণমুল কংগ্রেস, ভারতীয় জনতা পার্টি, কংগ্রেস ও বামপন্থী দলগুলির সঙ্গে একটি আলোচনা সভার আয়োজন করেছেন। এজন্য আজ বিকেল ৪টে নাগাদ চারটি দলের প্রতিনিধিকে রাজ্যপালের বাসভবনে উপস্থিত থাকার দন্য আহ্বান করা হয়েছে। 

রাজ্যপালের কার্যালয়ের তরফ থেকে প্রকাসিত একটি বিবৃতিতা বলা হয়েছে,  তৃণমুল কংগ্রেসের তরফ থেকে পার্থ চট্টোপাধ্যায়, রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ, সিপিআই (এম)-এর সূর্যকান্ত মিশ্র ও কংগ্রেসের সৌমেন্দ্র নাথ মিত্রকে সভায় আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। 

হঠাৎ কেন এই আলোচনাসভা? জানা গিয়েছে ভোট-পরবর্তী সময়ে রাজ্যে চলতে থাকা একাধিক হিংসার জেরে ইতিমধ্যেই ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে খবর। মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, নিহতদের মধ্যে ৮ জনই তাঁর দলের। যদিও তিনি এও বলেন যে, যেকোনও মৃত্যুই দুর্ভাগ্যজনক। রাজ্যপালের পক্ষ থেকে প্রকাশিত একটি বিবৃতিতে এও বলা হয়েছে যে, ভোট পরবর্তী হিংসার জেরে এতদিন পর্যন্ত রাজ্যে যে ধরণের অরাজকতা সৃষ্টি হয়েছে, তা বন্ধ করে রাজ্যে শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্যই এই আলোচনা সভার আয়াজন করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। 

ধর্ষণ কতরকম , তার ব্যখ্যা দিতে গিয়ে রোষের মুখে উত্তর প্রদেশের মন্ত্রী

সাংবাদিককে গ্রেফতার করা বোকামো- যোগীকে তোপ দাগলেন রাহুল

প্রসঙ্গত রাজ্যের বর্তমান পরিস্থিতি সম্পর্কে জানাতে রাজ্যপাল ত্রিপাঠি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে দেখাও করেন। রাজ্যে ঘটা চলা বিশৃঙ্খলা রুখতে এই বৈঠক কতখানি কাজে দেয় এখন সেটাই দেখার।