প্রেমিকের রহস্যমৃত্যু। আর তারই জেরে এক গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে গোটা গ্রামে ঘোরানো হল বীরভূমের নানুরে। একই সঙ্গে বেধড়ক মারধরও করা হয় ওই মহিলাকে। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে ওই মহিলাকে উদ্ধার করে। 

স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, একাধিক পুরুষের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন গৃহবধূ। সম্প্রতি তাঁরই এক প্রেমিকের রহস্যজনক মৃত্যুও হয়। এরই শাস্তি হিসেবে সালিশি সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বিবস্ত্র করে নির্যাতন চলে ওই মহিলার উপরে। 

আরও পড়ুন- প্রেমিকের রহস্যমৃত্যু, গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে ঘোরানো হল গোটা গ্রাম, দেখুন ভিডিও

স্থানীয় সূত্রে খবর, বীরভূমের নানুর থানা এলাকার বাসিন্দা ওই গৃহবধূ ২০১১ সালে দুই পুত্রসন্তান এবং স্বামীকে ছেড়ে অন্য এক পুরুষের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে বাড়ি ছেড়েছিলেন। বছর তিনেক পর ফিরে এসে আবারও স্বামীর সঙ্গে থাকতে শুরু করেন তিনি। অভিযোগ, মাস ছয়েক আগে থেকে বিশাল নাথ বলে ওই গ্রামেরই সাতাশ বছর বয়সি এক বিবাহিত যুবকের সঙ্গে ফের সম্পর্কে জড়ান ওই গৃহবধূ। গত বুধবার ওই যুবক বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করেন। এর পরেই গ্রামবাসীদের রোষ গিয়ে পড়ে ওই গৃহবধূর উপরে। যুবকের মৃত্যর জন্য তাঁকে দায়ী করে শুক্রবার রাতে গ্রামে সালিশি সভা বসানো হয়। সেখানেই ওই গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে গ্রামে ঘোরানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। যদিও যুবকের মৃত্যু কীভাবে হয়েছে, তার আলাদা তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। 

সেই সিদ্ধান্ত অনুযায়ীই এ দিন সকালে গ্রামের মূল রাস্তা দিয়ে ওই গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে ঘোরানো হয়। একই সঙ্গে বেধড়ক মারধর করা হয় তাঁকে। পুলিশ এসে উদ্ধার করার পর নিস্তার পান ওই মহিলা। যদিও এই ঘটনায় এখনও কাউকে গ্রেফতার বা আটক করা হয়নি।