খোদ তাঁর নামেই লেগেছে 'অনুপ্রবেশকারীর তকমা'। ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীর পদে বসার পরই বিপ্লব দেবের বিরুদ্ধে 'অনুপ্রবেশের' অভিযোগ করেছেন বিরোধীরা। এবার হাসির ছলে সেই অভিযোগের উত্তর দিলেন ত্রিপুরা বিজেপির পোস্টার বয়। ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, এনআরসি নিয়ে একটা ভয়ের পরিবেশ তৈরির চেষ্টা করা  হচ্ছে। মানুষকে বুঝতে হবে,এনআরসি-তে লোকসান হলে আমিও তো চলে যাব। যদিও হাসির  ছলে এই কথা বলে খোদ নিজের নামে ওঠা অভিযোগকেই জিইয়ে রাখলেন মুখ্য়মন্ত্রী। 

কালিয়াগঞ্জ বিধানসভা উপনির্বাচনে প্রচারের শেষ দিনে রাজ্য সরকার বিপ্লব দেবের রোড র‍্যালি বানচাল করার চক্রান্ত করেছে। শনিবার এমনই অভিযোগ করেছে বিজেপি।   এর প্রতিবাদে রাজ্য বিজেপির পক্ষ থেকে নির্বাচনের রিটার্নিং  অফিসারকে বরখাস্তের দাবি জানানো হয়েছে।  এ বিষয়ে মুখ্য নির্বাচনী অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছে বিজেপি। 

এদিন রায়গঞ্জ শহরে এক সাংবাদিক সম্মেলনে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী  বিপ্লব  দেব জানান, অন্য এক রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর সফরের ক্ষেত্রে রাজ্য সরকার ও স্থানীয় প্রশাসন কোনও প্রোটোকল মানেনি। উল্টে নাটক করে ষড়যন্ত্র করে আমার প্রচার কর্মসূচি বানচাল করার চেষ্টা করেছে। আমার ফিরে যাওয়ার সময় বুঝে নিয়ে তার পরে র‍্যালি করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। মানুষ নির্বাচনে এর জবাব দেবে। যদিও জেলাশাসক  জানিয়েছেন, বিজেপি  কি অভিযোগ  করেছে জানি না। এই নির্বাচনে প্রথমদিন থেকেই  ইলেকশন কমিশন অফ ইন্ডিয়ার গাইডলাইন মেনে প্রশাসন নিরপেক্ষভাবে কাজ করছে।