বয়স মাত্র ন' বছর। আর তাতেই জেলার একাধিক বড় পুজোকে কড়া চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলে দিয়েছে নদিয়ার করিমপুরের কেচুয়াডাঙার দিশারী সংঘ। এবছরও তার ব্যতিক্রম নয়। এবার দিশারী সংঘ তাদের পুজো মণ্ডপ তৈরি করেছে হায়দরাবাদের বিখ্যাত জগন্নাথ ধাম মন্দিরের আদলে। এশিয়ানেট নিউজ বাংলার জেলার বাছাই পনেরোটি পুজোর মধ্যে জায়গা করে নিয়েছে দিশারী সংঘ। 

তবে মণ্ডপ সজ্জার কাজ করতে গিয়ে গত কয়েকদিনে গলদঘর্ম হতে হয়েছে শিল্পী এবং উদ্যোক্তাদের। শেষ পর্যন্ত আবহাওয়ার কিছুটা উন্নতি হওয়ায় এখন চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি। যে নৈপুণ্যের সঙ্গে মণ্ডপ তৈরি করা হয়েছে, তাতে দর্শনার্থীদের অনেকেই হয়তো কয়েক মুহূর্তের মধ্যে হায়দরাবাদের আসল জগন্নাথধাম মন্দিরে পৌঁছে যাবেন। 

এ বছর দিশারী সংঘের এই মণ্ডপ পরিকল্পনা এবং রূপায়ণের দায়িত্বে ছিলেন শিল্পী রাণা বিশ্বাস। তাঁর আশা, গত কয়েক মাস ধরে পরিশ্রম করে গড়ে তোলা মণ্ডপ দর্শনার্থীদের মন জিতে নেবে। মণ্ডপের সঙ্গে মানানসই প্রতিমাও এই পুজোর বড় আকর্ষণ। আর রয়েছে তাক লাগানো আলোকসজ্জা। নদিয়াবাসীর মন জিতে নিতে চেষ্টার ত্রুটি রাখছেন না দিশারী সংঘের কর্তারা। এখন দেখার এশিয়ানেট নিউজ বাংলার জেলার সেরা পুজোগুলির মধ্যে দিশারী সংঘও জায়গা করে নিতে পারে কিনা।