সরকার প্রচুর কাজ করছে। কিন্তু তার প্রচার হচ্ছে না। এবার সরকারি আমলাদেরই সেই দায়িত্ব নিতে বললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে অফিসে বসে নয়, সরকারি আমলাদের চা, পানের দোকানে গিয়ে বসে জনসংযোগের পরামর্শ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী।

এ দিন শিলিগুড়ির উত্তরকন্যায় প্রশাসনিক বৈঠকে সরকারি কর্তাদের উদ্দেশে এমনই নির্দেশ দেন মুখ্যমন্ত্রী। সরকারি কাজের প্রচার নিয়ে তিনি বলেন, 'আমাদের সরকার অনেক কাজ করছে। কিন্তু তার কোনও প্রচার নেই। সরকারি আমলারাই একাধিক প্রকল্পের সম্পর্কে বিস্তারিত জানেন না। এবার প্রচারএ মন দিতে হবে। প্রয়োজনে চায়ের দোকান, পানের দোকানে গিয়ে বসে মানুষের সঙ্গে কথা বলুন।'

প্রসঙ্গত মুখ্যমন্ত্রী নিজেও অতীতে একাধিকবার জেলা সফরে গিয়ে সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথা বলতে রাস্তার পাশে চায়ের দোকানে ঢুকে পড়েছেন। সম্প্রতি দিঘাতে গিয়েও একটি চায়ের দোকানে ঢুকে নিজের হাতে চা বানিয়ে সবাইকে খাইয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। এবার জনসংযোগ গড়ে তুলতে সরকারি আমলাদেরও সেই একই কৌশল বলে দিলেন মমতা। গত লোকসভা নির্বাচনে গোটা উত্তরবঙ্গে খাতা খুলতে পারেনি তৃণমূল। হারানো জমি পুনরুদ্ধারে সরকারি প্রকল্পের সুফল আমজনতার দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতেই এবার সরকারি আমলাদেরও মাঠে নামাতে চাইছেন। 

এ দিনের প্রশাসনিক বৈঠকে অবশ্য ফের একবার এনআরসি নিয়ে সরব হন মুখ্যমন্ত্রী। এ দিন সরকারি আধিকারিকদেরও তিনি স্পষ্ট নির্দেশ দেন, রাজ্যে কোনও এনআরসি হবে না। ভোটার তালিকায় নাম থাকলেই তিনি নাগরিক হিসেবে গণ্য হবেন। এদিন জেলাশাসক থেকে শুরু করে বিডিও- দের মুখ্যমন্ত্রী নির্দেশ দেন, 'কারও নাম যেন ভোটার তালিকায় বাদ না যায়। ভাল করে দেখবেন। যে কোনও একটি নথি থাকলেই ভোটার কার্ড সম্ভব। কারও নাম বাদ দিয়ে নিজের কাজ কমানোর চেষ্টা করবেন না।'