বুধবার, পূর্ব মেদিনীপুরের কঁথি, অর্থাৎ একেবারে শুভেন্দু অধিকারীর গড়ে পদযাত্রা এবং সভা করল তৃণমূল কংগ্রেস। সভায় বক্তব্য রাখেন তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায় এবং রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। স্বাভাবিকভাবেই এদিনের সভা থেকে মূলত শুভেন্দু অধিকারীকেই আক্রমণ করেন দুই নেতা। এই প্রসঙ্গেই একটি রূপকথার গল্প বলেন সৌগত রায়।

তাঁর বক্তব্যের একেবারে শেষ লগ্নে উপস্থিত জনতাকে সৌগত বলেন, তিনি একটি রূপকথার গল্প বলে তাঁর বক্তব্য শেষ করতে চান। তিনি বলেন, এক জঙ্গলে একটা ইঁদুর ছিল। তাকে বিড়াল আক্রমণ করলে সে গিয়ে আশ্রয় নিয়েছিল এক মুনির আশ্রমে। মুনি তার অবস্থা দেখে মন্ত্রবলে তাকে বিড়াল করে দেন। এরপর সেই উঁদুরকে আর কোনও বিড়াল আক্রমণ না করলেও, ববের কুকুররা তার উপর হামলা করতে থাকে। ফলে সে আবার আশ্রয় নেই সেই মুনির কাছেই। এবার মুনি তাঁকে কুকুর করে দেন।

সেই কুকুরকে এরপর আক্রমণ করে একটি বাঘ। আবার সে ছুটতে ছুটতে ফিরে আসে মুনির কাছেই। মুনি তাঁকে মন্ত্রবলে বাধ বানিয়ে দেন। আর বাঘ হতেই সে আক্রমণ করে সেই মুনিকেই। তখন মুনি সেই বাঘরূপী ইঁদুরকে বলেন, তুমি সাহায্য পাওয়ার যোগ্য নও। তোমায় আমি বাঘ করে দিলাম, আর তুমি আমাকেই খেতে আসছ। তারপর আবার মন্ত্রবলে তাকে ইঁদুর করে দিয়েছিলেন সেই মুনি।

এই গল্প বলে সৌগত বলেন, শুভেন্দু অধিকারীরও সেই অবস্থাই হবে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আশীর্বাদে সে ইঁদুর থেকে বাড়তে বাড়তে এখন বাঘ হয়েছে। আর তারপর সে মমতাকেই আক্রমণ করেছে। এবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আবার তাকে ইঁদুর বানিয়ে দেবে।