দিনের পর দিনে ধর্ষণ করেছে বাবা! হাসপাতালে কন্যাসন্তানের জন্ম দিল এক কিশোরী।  'গুণধর' বাবা-কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে হুগলির উত্তরপাড়ায়।

অভিযুক্তের নাম রাজেশ শেখ ওরফে চাঁদ মহম্মদ। বাড়ি, মুর্শিদাবাদের সালারের।  রাজেশ আগেও একবার বিয়ে হয়েছিল। তাঁর প্রথম স্ত্রী থাকেন সালারে। পুলিশ জানিয়েছে, হুগলির উত্তরপাড়ায় ইটভাটায় কাজ করতে এসেছিল সে।  কিন্তু কাজ এসে ফের এক তরুণীকে বিয়ে করে রাজেশ। দ্বিতীয় স্ত্রীকে সংসার পাতে উত্তরপাড়ার কোতরং ধর্মতলা তিনি।  এদিকে রাজেশ দ্বিতীয়বার যে তরুণীকে বিয়ে করেছে, তাঁর আগে একবার বিয়ে হয়েছিল। এমনকী, আগের পক্ষে এক মেয়েও আছে। ওই তরুণী লোকের বাড়িতে পরিচারিকার কাজ করেন। 

রোজ সকালে যখন দ্বিতীয় স্ত্রী কাজে বেরিয়ে যেতেন, তখন ফাঁকা বাড়ি সৎ মেয়েকে রাজেশ ধর্ষণ করত বলে অভিযোগ। নির্যাতিতার দাবি, ঘটনার কথা কাউকে বললেও প্রাণে মেরে ফেলার ভয় দেখাত তার সৎ বাবা। এদিকে লাগাতার ধর্ষণে গর্ভবতী হয়ে পড়ে ওই কিশোরী। তাকে ভর্তি করা হয় উত্তরপাড়া স্টেট জেনারেল হাসপাতালে। গত ৯ নভেম্বর হাসপাতালে সে এক কন্যাসন্তানের জন্ম দেয় বলে জানা গিয়েছে। সৎ বাবার কীর্তিও জানাজানি হয়ে যায়। উত্তরপাড়া থানায় দ্বিতীয় স্বামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ জানান নির্যাতিতার কিশোরী মা।  পুলিশ জানিয়েছে, পরিস্থিতি বেগতিক বুঝে মুর্শিদাবাদে পালিয়ে গিয়েছিল রাজেশ।  কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। মুর্শিদাবাদ থেকে তাকে গ্রেফতার করেছে উত্তরপাড়া থানার পুলিশ।