নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে উস্কানিমূলক পোস্ট করে অন্যের ঘাড়ে দায় চাপানোর চেষ্টা করেও শেষরক্ষা হল না। 

সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করতে পারে, এমন পোস্ট করার অভিযোগে এক যুবককে গ্রেফতার করল দক্ষিণ চব্বিশ পরগণার কাশিপুর থানার পুলিশ। ধৃতের নাম টিপু সুলতান মোল্লা ওরফে টাপু। 

ধৃত যুবকের বাড়ি  ভাঙড় থানার কাশীনাথপুর গ্রামে। যদিও টিপু সুলতান দীর্ঘদিন ধরে কাশীপুর থানার মধ্য ভোগালি গ্রামে তাঁর আত্মীয়ের বাড়িতে ভাড়া থাকতেন। ধৃত ব্যক্তির পোলেরহাট বাজারে একটি জুতোর দোকান আছে। 

অভিযোগ, গত ১৮ আগষ্ট ফেসবুকে একটি পোষ্ট ভাইরাল হয়। তাতে দেখা যায়  টিপু সুলতান নিজের ওয়ালে হিন্দু দেবদেবীর ছবি বিকৃত করে পোস্ট করেছেন। ঘটনার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই টিপু সুলতান মোল্লা কাশীপুর থানায় এসে অভিযোগ করেন, তাঁর ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে অন্য কেউ ওই পোস্ট করেছে। ওই যুবকের দাবি ছিল, এ বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না। 

ঘটনার তদন্তে নেমে কাশীপুর থানা একটি মেল আইডি ও আইপি অ্যাড্রেস পায়। পুলিশ আইটি বিশারদদের সাহায্যে জানতে পারে, টিপু সুলতান তাঁর অন্য একটি অ্যান্ড্রয়েড ফোন থেকে ওই পোস্টগুলি করেছেন। হঠাৎ করেই টিপুর ভোগালির বাড়িতে তল্লাশি করে পুলিশ সেই মোবাইল ফোনটিও উদ্ধার করে। এর পরেই তাঁকে গ্রেফতার করা হয়। কী উদ্দেশ্য নিয়ে ওই যুবক এই কাজ করেছেন, তা জানার জন্য টিপুকে জিজ্ঞাসাবাদ করবে কাশীপুর থানার পুলিশ। ধৃতকে মঙ্গলবার বারুইপুর এসিজেএম আদালতে তোলা হলে বিচারক তাঁকে পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেন।