নারদকাণ্ডে রাজ্যের তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা মন্ত্রীদের গ্রেফতারের রেশ এখনও অব্যাহত। মঙ্গলবার রাজভবনের সামনে ভেড়ার পাল নিয়ে গিয়ে প্রতিবাদ দেখালেন এক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্য সুমন মিত্র। তাঁর অভিযোগ রাজ্যের মানুষ লকডাউন মেনে বাড়িতে বসে রয়েছে। সেখানে রাজ্যপালের জন্য রাজ্যে রাজনৈতিক জমায়েত হচ্ছে। তাই তিনি তাঁর আন্দোলনের স্লোগান দিয়েছেন 'রাজ্যপাল না ভেড়ার পাল!' তিনি বলেন যেখানে ভেড়ার জায়গা সেখানেই তিনি ভেড়া নিয়ে এসেছেন। তাঁর কথায় রাজভবন ভেড়ার জায়গা। করোনাকালে লোক আনা আনা যাবে না বলে তিনি সংগঠনের সদস্যদের নিয়ে আসেননি একাই এসেছেন বলেও জানিয়েছেন। গতকাল রাজ্যপালকে চড়া ভাষায় আক্রামণ করেছিলেন তৃণমূল আইনজীবি সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্য়ায়। তিনি বলেছিলেন রাজ্যপাল বিজেপিকে তুষ্ট করতে মরিয়া চেষ্টা করছে। আর সেই জন্য 'পাগল কুকুরের মত ছুটে বেড়াচ্ছেন।' রক্তচোষা বলেও কটাক্ষ করতে ছাড়েননি। 

সুমন মিত্র নিজেকে কোনও রাজনৈতিক সদস্য হিসেবে পরিচয় দিতে নারাজ ছিলেন। তাঁর কথায় লকডাউনের কারণে যখন দিন আনি দিখ খাই মানুষ তীব্র সংকটের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন, অধিকাংশ মানুষ বাড়ির বাইরে যেতে পারছেন না তখন রাজ্যে কোভিড বিধির তোয়াক্কা না করেই রাজনৈতিক জমায়েত হচ্ছে। মূলত গতকাল অর্থাৎ সমবারের কথা উল্লেখ করেন তিনি। তিনি বলেন গ্রেফতার করা উচিৎ, কিন্তু তার একটি সঠিক সময় থাকবে। এই করোনাকালে এজাতীয় পদক্ষেপেরও তিনি তীব্র সমালোচনা করেন। তবে তাঁকে বেশিক্ষণ সেখানে দাঁড়াতে দেওয়া হয়নি। খুব তাড়াতাড়ি পুলিশ সরিয়ে দেয় সুমনকে। সরিয়ে দেওয়া হয় ভেড়ার পালও । 

গতকাল রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের অনুমতি নিয়ে সিবিআই গ্রেফতার করেছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মন্ত্রিসভার দুই সদস্য সুব্রত মুখোপাধ্য়ায় ও ফিরহাদ হাকিমকে। গ্রেফতার করা হয়েছিল কামারহাটির বিধায়ক মদন মিত্র ও দলবদলু কলকাতা পুরসভার প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যয়কেও। তারপরই মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায় চলে আসেন নিজাম প্যালেসে। রাজ্যপাল সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়ে মমতাকে আইন না ভাঙার অনুরোধও জানিয়েছিলেন। এরই মধ্যে নারদকাণ্ডে সিবিআই গ্রেফতারির প্রতিবাদে তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীরা নিজাম প্যালেসে সিবিআই দফতেরর সামানে ও রাজভবনের সামনে প্রায় গোটা দিনভর প্রতিবাদ জানান। লকডাউন চলাকালীন কোভিড বিধি আমান্য করেই চলে প্রতিবাদ বিক্ষোভ। রাজনৈতিক মহলের ধারনা গোটা ঘটনার জন্যই রাজ্যপালকে জায়ি করে রাজভবনের সামনে ভেড়ার পাল নিয়ে প্রতিবাদ জানান ওই ব্যক্তি।