দেড় মাসের মধ্যেই বিজেপির প্রতি মোহভঙ্গ ঘটল অমল আচার্যের। বিজেপিতে যোগদানকারী উত্তর দিনাজপুর জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি ও ইটাহারের প্রাক্তন তৃণমূল বিধায়ক অমল আচার্য ফের তৃণমূলে ফিরতে চান।  বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের অঙ্গুলি হেলনে সিবিআই অনৈতিকভাবে হেনস্থা করছে রাজ্যের দুই মন্ত্রী এবং ২  বিধায়ককে। এরই প্রতিবাদে বিজেপি ছেড়ে দিতে চান তিনি। 

বিশেষ করে বর্ষীয়ান তৃণমূল নেতা সুব্রত মুখোপাধ্যায় এবং ফিরহাদ হাকিমের মতো জনপ্রতিনিধিদের এভাবে সিবিআই হেনস্থা করার প্রতিবাদ জানিয়েই বিজেপি দল ছেড়ে তিনি পুনরায় মা মাটি মানুষের দল তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করতে চান। ইতিমধ্যেই তৃণমূল শীর্ষ নেতৃত্বের কাছে লিখিত আবেদন করেছেন বলে টেলিফোনে জানিয়েছেন বিজেপি নেতা অমল আচার্য। যদিও অমল বাবুর তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদানের আবেদন সম্পর্কে তাঁর কিছুই জানা নেই বলে জানিয়েছেন উত্তর দিনাজপুর জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি কানাইয়ালাল আগরওয়াল। 

যদিও রাজনৈতিক মহলের গুঞ্জন বিজেপিতে গিয়ে হালে পানি না পেয়ে পুরোনো দলেই ফিরতে চেয়েছেন ইটাহারের একসময়ের দোর্দণ্ডপ্রতাপ তৃণমূল নেতা অমল আচার্য। 

উত্তর দিনাজপুর জেলার বিধানসভা ভোটের ঠিক ১৫ দিন আগে দলের প্রার্থী না হতে পারার ক্ষোভে এবং তৃণমূল প্রার্থীকে হারানোর উদ্দেশ্য নিয়ে বিজেপিতে যোগদান করেছিলেন ইটাহারের দু'দুবারের তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক দলের প্রাক্তন জেলা সভাপতি অমল আচার্য।

৭ এপ্রিল ইটাহারের চৌরাস্তা মোড়ে কেন্দ্রীয় নারী ও শিশু কল্যান প্রতিমন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী ও বালুরঘাটের বিজেপি সাংসদ সুকান্ত মজুমদারের হাত থেকে বিশাল এক জনসভা করে বিজেপির পতাকা তুলে নিয়েছিলেন শুভেন্দু অনুগামী ইটাহারের দোর্দণ্ডপ্রতাপশালী তৃণমূল নেতা অমল আচার্য।  বিজেপিতে যোগদান করেই তাঁর হুঙ্কার ছিল ইটাহারের মমতা বন্দোপাধ্যায় মনোনীত প্রার্থী মুশাররফ হোসেনকে কয়েক হাজার ভোটে হারানোর। ইটাহারের মানুষ ভোটে জয়ী করেছিলেন মমতার প্রার্থী মুশাররফ হোসেনকে ৪৫ হাজার ভোটে। 

এরপর থেকে বিজেপি দলে একেবারেই অপ্রাসঙ্গিক হয়ে ওঠেন অমল আচার্য।  ভোটের ফলাফলের পর থেকেই গেরুয়া রাজনীতির আড়ালে চলে যান তিনি। বিজেপিতে যোগদানের মাত্র দেড়মাসের মধ্যেই মোহভঙ্গ হয় তাঁর। শনিবারই তিনি পুরোনো দল তৃণমূল কংগ্রেসে ফিরতে চেয়ে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দোপাধ্যায়, তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সি এবং তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের কাছে আবেদনপত্র পাঠিয়েছেন বিজেপির এই নতুন নেতা। 

যদিও ভোটের আগে সদ্য বিজেপিতে যোগদানকারী উত্তর দিনাজপুর জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের প্রাক্তন চেয়ারম্যান অমল আচার্যের তৃণমূলে যোগদানের বিষয়ে কিছুই জানেন না বলে জানিয়েছেন উত্তর দিনাজপুর জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি কানাইয়ালাল আগরওয়াল। তিনি বলেন তাঁর কাছে এই বিষয়ে কোনও তথ্যই নেই।