Asianet News Bangla

'বিজেপিও দাউদাউ করে জ্বলে শেষ হবে', পদ্ম শিবিরে ভাঙন ধরিয়ে বিস্ফোরক দলবদলু নেতা

পুরুলিয়া জেলায় বিজেপিতে বড় ভাঙন

সম্প্রতি ফুল বদলেছেন জেলা পরিষদের বিরোধী দলনেতা

এদিন তাঁর কুশপুতুল দাহ করল বিজেপি

তাঁর নামে উঠল 'বলো হরি হরি বোল' ধ্বণিও

Purulia BJP workers burn effigy of Ajit Bauri, recently defected to TMC  ALB
Author
Kolkata, First Published Jun 23, 2021, 10:28 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির উত্থান ঘটেছিল পুরুলিয়া জেলা থেকেই। সেই জেলাতেই বিজেপিতে ধরেছে ভাঙন। গত ১৯ জুন বিজেপি ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করেছেন জেলা পরিষদের বিরোধী দলনেতা অজিত বাউরি। তার সঙ্গে ফুল বদলেছেন দুই জেলা পরিষদ সদস্য মানিকচাঁদ কুমার এবং তনুশ্রী বাউরিও। বুধবার, অজিত বাউরির কুশপুতুল দাহ করে প্রতিবাদ জানালেন জেলার রঘুনাথপুর ১ নম্বর ব্লকের বিজেপি কর্মীরা। তাঁর নাম করে দিলেন 'বলো হরি হরি বোল' ধ্বণি। সেই সঙ্গে স্লোগান উঠল 'অজিত বাউরি মুর্দাবাদ'।

তবে এই হরিধ্বণি তাঁর মৃত্যুর নয়, জেলা বিজেপির মৃত্যুর জন্য দেওয়া, এমনটাই দাাবি অজিত বাউরির। সাংবাদিকদের সামনে রীতিমতো নাটকীয় ভঙ্গিতে তিনি বলেছেন, 'আজ আমার যেমন কুশপুতুল দাউদাউ করে জ্বলছে, সেই রকম একদিন বিজেপিও দাউদাউ করে জ্বলে শেষ হবে। যেমন করে জেলায় বিজেপির উত্থান হয়েছিল, সেরকম করেই একদিন শেষও হবে বিজেপির। আবার জেলায় পঞ্চায়েত, বিধানসভা, লোকসভা নির্বাচনে নতুন করে উত্থান হবে তৃণমূল কংগ্রেসের। '

বস্তুত, অজিত বাউরির দলবদলের পর থেকেই বেশ চাপে রয়েছে জেলার বিজেপি শিবির। ২০১৮ সালের পঞ্চায়েতে নির্বাচনে রঘুনাথপুর এলাকার পুরুলিয়া জেলা পরিষদের 'জেডপি৩৭' (ZP37) আসন থেকে বিজেপির টিকিটে নির্বাচিত হয়েছিলেন অজিত বাউরি। সেই সময় তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন তৃণমূলের হাজারি বাউরি। সদ্য সমাপ্ত বিধানসভা নির্বাচনে, রঘুনাথপুর বিধানসভা আসন থেকে তাঁকেই প্রার্থী করেছিল তৃণমূল কংগ্রেস। কিন্তু, এই বারেও তাঁর নির্বাচনী ভাগ্যের শিকে ছেঁড়েনি। তবে রাজ্যের পূর্ত ও আইন মন্ত্রী মলয় ঘটকের হাত ধরে অজিত বাউরি তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করার পর এখন এই জেলাতেও ফের ঘাসফুল ফোটার আশা দেখছে তৃণমূল।

এদিকে, অজিত বাউরি তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেওয়ায়, হঠাৎ করেই পুরুলিয়া জেলা পরিষদের বিরোধী দলনেতার পদটি ফাঁকা হয়ে গিয়েছে। সেই শূন্যস্থান কে পূরণ করবেন, তা নিয়েও তৈরি হয়েছে নানান জল্পনা। জেলা পরিষদের বর্তমানে বিজেপির সদস্য সংখ্যা ৫। তাদের অন্যতম বিষ্ণুপ্রিয়া মাহাতো বলেছেন, 'বিরোধী দলনেতা কে হবেন, সেটা এখনও দল ঠিক করেনি।' বিজেপির জেলা সম্পাদক বিবেক রাঙ্গা বলেছেন, 'শীঘ্রই দলের মধ্যে আলোচনা করে বিরোধী দলনেতার নাম ঘোষণা করা হবে।

তবে, তাই নিয়ে অন্তত সাধারণ বিজেপি কর্মীদের কোনও মাথাব্যথা নেই। তাঁরা জানান, রঘুনাথপুর ১ নম্বর ব্লকের শাঁকা অঞ্চল থেকে অজিত বাউরি জেলা পরিষদ আসনে নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি বিজেপিতে আর নেই। তাই তাঁকে মৃত ঘোষণা করে শ্রাদ্ধ অনুষ্ঠান করা হল।

 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios