Asianet News Bangla

কুলিক নদীর বাঁধের ভিত ঝাঁঝরা করে চলছে মাটি কাটা, আসন্ন বর্ষায় বাঁধ ভেঙে প্লাবনের আশঙ্কা

  • অবৈধভাবে মাটি কাটা হচ্ছে
  • কুলিক নদীর বাঁধ সংলগ্ন এলাকায় মাটি কাটা চলছে
  • প্রায় চার বিঘা জমির মাটি কাটা হয়েছে
  • বাড়ছে প্লাবনের আশঙ্কা
     
Soil is being cut illegally in the area adjacent to the Kulik river dam bpsb
Author
Kolkata, First Published Jun 14, 2021, 1:08 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

অবৈধভাবে কুলিক নদীর বাঁধ সংলগ্ন এলাকায় মাটি কাটা চলছে। ট্রাকের পর ট্রাক ভর্তি করে মাটি কাটা হচ্ছে। উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জ শহর সংলগ্ন কুলিক নদীর বাঁধের ওপর নির্ভর করে রয়েছে গোটা শহরের নিরাপত্তা। কিন্তু ক্রমাগত মাটি কাটার ফলে বাঁধের ভিত আলগা হচ্ছে বলে অভিযোগ পরিবেশবিদদের। 

এই অভিযোগের প্রেক্ষিতে আচমকা অভিযান চালায় ভূমি ও ভূমি সংস্কার দফতর। আটক করা হয় একটি মাটি ভর্তি ট্রাক্টর। ভূমি ও ভূমি সংস্কার দফতর আধিকারিক জানিয়েছেন, আনুমানিক প্রায় চার বিঘা জমির মাটি কাটা হয়েছে। পূর্ণাঙ্গ তথ্য প্রশাসনের উচ্চ পদস্থ কর্তাদের হাতে তুলে দেওয়া হবে।

করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রনে সারা রাজ্যে লকডাউন চলছে। লকডাউনের সময় অধিকাংশ সরকারি দফতর বন্ধ হয়ে আছে। সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে রায়গঞ্জ কুলিক নদীর বাঁধ সংলগ্ন এলাকায় দেদার মাটি কাটা হচ্ছে বলে অভিযোগ। এই মাটি কাটার জন্য বর্ষার সময় নদীর জল বাড়লে নদী বাঁধের ক্ষতি হবার আশঙ্কা থাকছে। 

পরিবেশবিদরা জানাচ্ছেন দেদার মাটি কাটার ফলে নদীর গতিপথ পরিবর্তন হবারও আশঙ্কা থেকে যায়। প্রশাসনের নজরে আসার পর রায়গঞ্জ মহকুমা শাসককে সঙ্গে নিয়ে অভিযান চালান ভূমি ও ভূমি সংস্কার দফতরের আধিকারিকরা। তবে কোনও মাটি কাটার শ্রমিক বা ট্রাকচালককে গ্রেফতার করা যায়নি। ঘটনাস্থল থেকে একটি মাটি ভর্তি ট্রাক্টর আটক করা হয়। গোটা এলাকা ঘুরে দেখেন ভূমি ও ভূমি সংস্কার দফতরের আধিকারিকরা। 

দফতরের আধিকারিকরা জানান, লকডাউনের সুযোগেই এই মাটি কাটার কাজ চলছে। প্রায় চার বিঘার মাটি কাটা হয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে অনুমান করা হচ্ছে। শুধু মাটি কাটাই নয়, কুলিক নদী সংলগ্ন অভয়ারণ্য থেকে ক্রমাগত চলছে গাছ কাটা। অবৈধ ভাবে গাছ কাটার ফলে এলাকার মাটির ভিত আলগা হয়ে পড়ছে। এতে বন্যার আশঙ্কা ক্রমশ বাড়ছে। পর্যাপ্ত নজরদারির অভাবে চলছে এই অবৈধ কারবার। ভূমিক্ষয় বাড়ছে গোটা এলাকা জুড়েই। আসন্ন বর্ষায় গোটা রায়গঞ্জ প্লাবিত হতে পারে বলে আশঙ্কা পরিবেশবিদদের। 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios