নিজের বাবা- মাকেই ঘুমন্ত অবস্থায় পিটিয়ে খুন করল ছেলে। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনা ঘটেছে উত্তর চব্বিশ পরগণার সোদপুরের নাটাগড়ে। অভিযুক্ত ছেলেকে ধরে পুলিশের হাতে তুলে দেন স্থানীয় বাসিন্দারাই। 

স্থানীয় সূত্রে খবর, নিহত দম্পতির নাম সুনীল সাহা (৬৫) এবং শেফালী সাহা (৬০)। তাঁদের একমাত্র ছেলে অমিত সাহাই এই কাণ্ড ঘটিয়েছে বলে অভিযোগ। স্থানীয় সূত্রে খবর, বুধবার ভোররাতে বাবা- মা যখন ঘুমিয়ে ছিলেন, তখনই দরজার খিল দিয়ে তাঁদের মাথায় আঘাত করতে শুরু করে বছর পয়ত্রিশের অমিত। এলাকাবাসীরা প্রাথমিকভাবে জানিয়েছেন, মঙ্গলবার রাতে খাওয়া দাওয়ার পরে ঘুমিয়ে পড়েছিলেন ওই বৃদ্ধ দম্পতি। এর পরেই কাজ থেকে ফিরে পেশায় সেলসম্যান অমিত এই কাণ্ড ঘটায় বলেই অনুমান প্রতিবেশীদের। 

অমিতের হামলার জেরে গুরুতর জখম হন ওই দম্পতি। চিৎকার- চেঁচামেচি শুনে ছুটে আসেন প্রতিবেশীরা। রক্তাক্ত অবস্থায় তাঁদের পানিহাটি স্টেট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা দম্পতিকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। এলাকার বাসিন্দারাই অমিতকে ধরে পুলিশের হাতে তুলে দেন। ঘোলা থানার পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। কিন্তু কেন সে নিজের বাবা-মাকেই এভাবে খুন  করল, তা এখনও স্পষ্ট নয়। তবে প্রাথমিক ধারণা, আর্থিক অনটনের জেরে সমস্যার কারণেই সম্ভবত এই কাণ্ড ঘটিয়েছে ওই যুবক। খুনের উদ্দেশ্য জানতে ধৃতকে জেরা করছে পুলিশ।