স্রেফ নিরাপদে ফিরিয়ে আনাই নয়, কাশ্মীর ফেরত বাংলার শ্রমিকদের পাশে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার। সোমবার কাশ্মীর কর্মরত যে ১৩৩ শ্রমিক ফিরে এসেছেন, তাঁরা প্রত্যেকেই সরকারের তরফে ৫০ হাজার টাকা করে আর্থিক সাহায্য পাবেন। এমনকী, যাঁদের বাড়ি নেই, তাঁদের 'বাংলার বাড়ি'  প্রকল্পে বাড়িও দেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে। 

বাংলার তেমন কাজ নেই। রোজগারের আশায় কাশ্মীরে গিয়ে জঙ্গিদের হাতে প্রাণ দিতে হয়েছে মুর্শিদাবাদের পাঁচ শ্রমিককে। বাংলার কর্মসংস্থান নিয়ে যখন রাজ্য সরকারকে নিশানা করেছে বিজেপি, তখন কাশ্মীর ফেরত ১৩৩ জন বাঙালি শ্রমিককে আর্থিক অনুদান দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার।  মঙ্গলবার নবান্নে অর্থসচিব ও মুখ্যসচিবের সঙ্গে বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৈঠকে কাশ্মীর ফেরত শ্রমিকদের আর্থিক সাহায্য করার বিষয়টি চূড়ান্ত হয়। রাজ্যের সমর্থন প্রকল্পের ৫০ হাজার টাকা করে আর্থিক সাহায্য পাবেন। জানা গিয়েছে, নোট বাতিলের কর্মহীন বাঙালিদের জন্য একটি প্রকল্প তৈরি করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই প্রকল্পের সুবিধাও পাবেন কাশ্মীর ফেরত এ রাজ্যের শ্রমিকরা। মিলবে বাড়ি ও ২ টাকা কেজি দরে চালও।

কাশ্মীরে মুর্শিদাবাদে পাঁচজন খুন হওয়ার পরেই, ভু-স্বর্গে কর্মরত বাংলার বাকী শ্রমিকদের ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ নেয় রাজ্য সরকার। সোমবার বিকেলে জম্মু-তাওয়াই এক্সপ্রেসে কলকাতা স্টেশনে পৌঁছন কাশ্মীর কর্মরত বাংলার ১৩৩ জন শ্রমিক।  এই দলে ছিলেন  দক্ষিণ দিনাজপুর, কোচবিহার, জলপাইগুড়ি, উত্তর ২৪ পরগণা, বীরভূম ও মালদহের শ্রমিকরা।