শুক্রবার ‌দিনভর বৃষ্টিতে হিমেল ভাব রাজ্য জুড়ে। টানা বৃষ্টিতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা অনেকটাই কমে গিয়ে বেশ কয়েকটি জেলায় হল শীতল দিন। তুষারপাত হল সান্দাকফুতে। পশ্চিমের জেলা গুলোতে আগামীকাল সকালে কুয়াশা হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আজ দার্জিলিং ও সিকিমের উঁচু স্থান তুষার পাত হওয়ার প্রবল সম্ভাবনা।

আরও পড়ুন, নৈহাটির বাজি কারখানার মালিক গ্রেফতার, পূর্ণাঙ্গ তদন্ত হওয়া উচিত, টুইট রাজ্যপালের

বৃহস্পতিবার বিকেলের পর থেকেই দক্ষিণবঙ্গের জেলায় জেলায় হালকা বৃষ্টি শুরু হয়। বৃষ্টির পরিমান বাড়ে শুক্রবার ভোর থেকে। বেশিরভাগ সময় আকাশ ছিল মেঘে ঢাকা। তাতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা বেশ খানিকটা কমে যায়। সর্বোচ্চ এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা খুব কাছাকাছি চলে আসে। এর ফলে দিনভর হিমেল আমেজ ছিল। পশ্চিমের জেলাগুলিতে শীতে কাবু অবস্থা। এদিন ভাল বৃষ্টি হয়েছে আসানসোল, মগরা, বাঁকুড়া, ব্যারাকপুর, বহরমপুর, বর্ধমান, ক্যানিং, কোচবিহার, ডায়মন্ড হারবার, কলকাতা, দমদম, পানাগড়, পুরুলিয়া, বীরভূমে। 

এদিন কলকাতায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৫.‌৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। দফায় দফায় বৃষ্টির কারণে দুপুরে সেই তাপমাত্রা খুব একটা বাড়তে পারেনি। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২ ডিগ্রির কিছুটা বেশি বেড়ে হয় ১৮.‌০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে ৭ ডিগ্রি কম। হয় শীতল দিন। কলকাতার মতোই শীতল দিন ছিল দমদম, বিধাননগর, বালুরঘাট, কাঁথি, ডায়মন্ড হারবার, কলাইকুন্ডায়। তবে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা প্রায় সর্বত্রই স্বাভাবিকের চেয়ে একটু বেশি ছিল।

আরও পড়ুন, জালে ধরা পড়ল ৭০ কেজির কই ভোলা, বাজারে দাম উঠল ৫০ হাজার


ফের কলকাতার তাপমাত্রা ২ থেকে ৩ ডিগ্রি কমার সম্ভাবনা রয়েছে । আজ থেকে বৃষ্টির অনেক কমে যাবে দক্ষিণ বঙ্গে।  হালকা বৃষ্টি হবে মুর্শিদাবাদ, নদীয়া, বীরভূম,বর্ধমানে।   কলকাতার তাপমাত্রা আজ ১৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস ও কাল ১৩ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আসে পাশে থাকবে। সোমবার থেকে  ১২ ডিগ্রি সেলসিয়াস থেকে ১৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস হবে। এবং এটা বজায় থাকবে মঙ্গল ও বুধবার পর্যন্ত। আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, কাল, রবিবার মেঘ কেটে যাবে। রাতের দিকে তাপমাত্রা  কমবে । গোটা দক্ষিণবঙ্গেই ওই দিন থেকে ফের একবার কনকনে শীতের পরিস্থিতি গড়ে উঠতে পারে।