দিঘা যাওয়ার পথে ফের দুর্ঘটনা। প্রাণ হারালেন দুই পর্যটক। গুরুতর আহত আরও দু'জন। আহতদের এগরা সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। মৃতদের মধ্যে একজন কলকাতা পুলিশের কর্মরত ছিলেন বলে জানা গিয়েছে। 

স্থানীয় সূত্রে খবর, সোমবার রাতে এগরা- দিঘা রাজ্য সড়কের উপরে বেলতলা বাসস্টপের কাছে দুর্ঘটনাটি ঘটে। রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকা সিমেন্ট বোঝাই লরির পিছনে সজোরে ধাক্কা মারে একটি স্করপিও গাড়ি। জানা গিয়েছে, গাড়িটিতে মোট  চারজন পর্যটক ছিলেন। গাড়িটি এতটাই গতিতে ছিল যে লরির পিছনে ধাক্কা মারার পরে সেটি উল্টে যায়। ঘটনাস্থলেই দুই পর্যটকের মৃত্যু হয়। 

স্থানীয়রাই আহতদের উদ্ধার করে এগরা সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। দুর্ঘটনার জেরে ওই রাস্তায় ব্যাপক যানজট তৈরি হয়। পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। স্থানীয়দের অভিযোগ, বেআইনিভাবে রাস্তার পাশে লরি দাঁড় করিয়ে রাখার কারণেই নিয়মিত দুর্ঘটনা ঘটছে। 

পুলিশ সূত্রে খবর মৃত দুই পর্যটকের নাম সন্দীপ পাড়ি (৩০) এবং সঞ্জয় সোম (৩২)।  মৃত সন্দীপ কলকাতা পুলিশে কর্মরত ছিলেন। তিনি কলকাতারই বাসিন্দা বলে জানা গিয়েছে।  মৃত সঞ্জয় সোমের বাড়ি বাড়ি পশ্চিম মেদিনীপুরের নারায়ণগড় থানার বেনডিহা গ্রামে। জখম চালক এবং আরও এক আরোহীর নাম পরিচয় এখনও জানা যায়নি।