দিনের পর দিন নিজের ভাইঝিকে ধর্ষণ করার অভিযোগ ষাঠোর্ধ্ব জেঠুর বিরুদ্ধে। যার জেরে গর্ভবতী হয়ে পড়ল দশম শ্রেণির এক ছাত্রী। এ দিন দুপুরেই নবদ্বীপ থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন নির্যাতিতার মা। ঘটনার কথা জানানোর পর থেকেই পলাতক অভিযুক্ত। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনা ঘটেছে নবদ্বীপের স্বরূপগঞ্জ এলাকায়। 

স্থানীয় সূত্রে খবর, নির্যাতিতা কিশোরীর বাবা মানসিক ভারসাম্যহীন। তিনি ভিক্ষা করেন। সংসার চালাতে পরিচারকিরা কাজ করেন ওই কিশোরীর মা। নির্যাতিতার দিদিও মানসিক ভারসাম্যহীন হওয়ায় যখন তখন বাড়ি থেকে বেরিয়ে যেত। 

অভিযোগ বাড়িতে ওই কিশোরীর একা থাকার সুযোগ নিয়েই দিনের পর দিন তাঁকে ধর্ষণ করত অভিযুক্ত কানাই দেবনাথ। গত ছ' মাস ধরে ভাইঝির উপরে এভাবেই নির্যাতন চালাচ্ছিল নিজের জেঠু। ঘটনার কথা কাউকে না জানানোর জন্য কিশোরীকে সে ভয়ও দেখাত বলে অভিযোগ। 

সম্প্রতি ওই কিশোরীর শারীরিক পরিবর্তন চোখে পড়ে তার মার। তিনি মেয়েকে চেপে ধরতেই সব কথা খুলে বলে সে। তার পরেই ঘটনার কথা জানাজানি হয়। বিপদ বুঝে পালিয়ে যায় অভিযুক্ত কানাই দেবনাথ। এ দিন দুপুরেই নবদ্বীপ থানায় অভিযোগ জানান কিশোরীর মা। নিজের ভাসুরের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেছেন তিনি। ঘটনার তদন্তে নেমেছে নবদ্বীপ থানার পুলিশ।