পদ্মা-যমুনায় ও ইছামতি এই তিন নদী সীমান্তের জলমগ্ন এলাকা গুলি নৌকা করে ঘুরে দেখলেন খাদ্যমন্ত্রী। তিন নদীর মোহনায় ২০০ মিটার বাইপাস খাল করে দ্রুত জল নিকাশি ব্যবস্থা করা হবে বলে মঙ্গলবার এলাকা পরিদর্শন শেষে জানান রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। উত্তর ২৪ পরগনা জেলার বসিরহাট মহাকুমার স্বরূপনগর ব্লকের চারঘাট অঞ্চলের বিভিন্ন জায়গা জলমগ্ন হয়েছে আছে দীর্ঘদিন ধরে। 

কারণ যমুনা, পদ্মা ও ইছামতি নদী দীর্ঘদিন সংস্কার না হওয়ার ফলে নদীর নাব্যতা কমে যাওয়ার ফলে স্বরূপনগর ও গাইঘাটা ব্লকের বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হচ্ছে। একটু বৃষ্টি হলে নদীর জল ছাপিয়ে চারঘাট, টিপি, সগুনা, গাইঘাটা সহ বিভিন্ন জায়গায় জলমগ্ন হয়ে যাচ্ছে। যার কারণে মানুষের জীবন যাত্রা দুর্বিষহ হয়ে পড়ছে । একদিকে গ্রাম প্লাবিত হচ্ছে, অন্যদিকে হাজার হাজার বিঘের চাষের জমিতে ও  মাছের ভেড়ি বা জলকরে নোনাজল ঢুকে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।  

তাই আজ মঙ্গলবার বিকেল চারটে নাগাদ  রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, উত্তর ২৪ পরগনা জেলা পরিষদের পরিষদের সভাধিপতি বিনা মন্ডল, জেলার শেষ দপ্তরের আধিকারিক দের সঙ্গে নিয়ে নৌকায় করে  বিভিন্ন দুর্গত এলাকা ঘুরে দেখেন। গ্রামবাসীদের সঙ্গে কথা বলেন, এবং যাতে দ্রুত যমুনা, পদ্মা ও ইছামতি সংস্কার হয় তার সব রকম চেষ্টা করবেন বলে আশ্বাস দেন। চারঘাট ও টিপি অঞ্চলে নৌকায় করে বিভিন্ন জায়গা পরিদর্শন করেন এবং স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলেন  জেলার সেচ দপ্তর প্রতিনিধিরা ।