গোটা দেশের সঙ্গে পশ্চিমবঙ্গেও লোকসভা নির্বাচন ২০১৯-এর ভোট গণনা। একই সঙ্গে চলছে রাজ্যের ৮টি বিধানসভা উপ-নির্বাচনের ভোট গণনাও। লোকসভা নির্বাচনের ট্রেন্ড বলছে রাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেস-এর প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে উঠে এসেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। বিধানসভা উপনির্বাচনেও এই প্রবণতারই প্রতিফলন দেখা যাচ্ছে।

আপাতত রাজ্যের আটটি বিধানসভা উপনির্বাচনে ৩ টি আসনে এগিয়ে রয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থীরা। আর ৪টি আসনে এগিয়ে বিজেপি প্রার্থীরা। শুধুমাত্র কান্দি লোকসভা কেন্দ্রে এগিয়ে জাতীয় কংগ্রেস।

এর মধ্যে বিশেষ উল্লেখযোগ্য দার্জিলিং-এ তৃণমূল প্রার্থী বিনয় তামাং পিছিয়ে রয়েছেন বিজেপি প্রার্থীর থেকে। বিমল গুরুং-কে সরিয়ে এই বিনয় তামাংকেই পাহাড়ের নতুন সঙ্গী হিসেবে বেছে নিয়েছিলেন মমতা বন্দোপাধ্যায়। কিন্তু, এই গণনার শেষে যদি তাঁকে হারতে হয়, তবে বুঝে হবে, মমতা বন্দোপাধ্য়ায়ের সুরে আর পাহাড় হাসছে না।

অপরদিকে, ভাটপাড়া বিধানসভা কেন্দ্রটি ছেড়ে লোকসভায় প্রার্থী হয়েছিলেন তৃণমূল থেকে জার্সি পাল্টে বিজেপি হওয়া অর্জুন সিং। ভোটের আগে, ভোটের দিনে এমনকী গণনার আগের দিন পর্যন্ত বারে বারে টিএমসি-বিজেপি সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়েছিল বাটপাড়া। নির্বাচন কমিশন অনির্দিষ্টকালের জন্য ভাটপাড়ায় ১৪৪ ধারাও জারি করা হয়েছে। সেই ভাটপাড়াতে পিছিয়ে রয়েছেন তৃণমূলের হেভিওয়েট প্রার্থী তথা রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী মদন মিত্র। এই কেন্দ্রে এগিয়ে রয়েছেন অর্জুন সিং-এর ছেলে।

২০১৬ বিধানসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি ৩টি আসন পেয়েছিল। এই উপনির্বাচনে বিজেপি যদি ৪টি আসন পায়, তাহলে বিধানসভায় বিজেপির বিধায়কের সংখ্যা দাঁড়াবে ৭।