সোমবারই মহারাষ্ট্র ও হরিয়ানা - দুই রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন। মহারাষ্ট্রে মূল লড়াই বিজেপি-শিবসেনা জোটের সঙ্গে কংগ্রেস-এনসিপি জোটের। আর হরিয়ানায় বিজেপি বনাম কংগ্রেস সরাসরি। মহারাষ্ট্রে মোট ২৮৯টি আসনে ভোট। তার জন্য ভোট যুদ্ধে সামিল হচ্ছেন মোট ৩১১২ জন প্রার্থী। আর হরিয়ানার ৯০টি বিধানসভা আসনে লড়বেন মোট ১১৬৮ জন প্রার্থী। এক নজরে দেখে নেওয়া যাক দুই রাজ্যের মোট কতজন কোটিপতি প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারিত হবে এদিন। একি সঙ্গে জেনে নেওয়া যাক দুই রাজ্যেই কোন দল কতজন করে ফৌজদারি অপরাধের অভিযোগ থাকা প্রার্থীকে দাঁড় করিয়েছে।

মহারাষ্ট্রের কোটিপতিরা

মহারাষ্ট্রে ৩১১২ জন প্রার্থীর মধ্যে ১০০৭ জনই কোটিপতি। অর্থাৎ এই রাজ্যে ৩২ শতাংশ প্রার্থীই কোটিপতি। এরমধ্যে বিজেপি ও শিবসেনার প্রার্থীর সংখ্যাই বেশি।

ফৌজদারি অপরাধের মামলা থাকা মহারাষ্ট্রের প্রার্থীরা

মহারাষ্ট্রে ফৌজদারি মামলা রয়েছে এমন প্রার্থীর সংখ্যা ৯১৬। শতাংশের হিসেবে মোট প্রার্থীর ২৯ শতাংশের বিরুদ্ধেই অভিযোগ রয়েছে।

হরিয়ানার কোটিপতিরা
                                                               
হরিয়ানার ১১৬৮ জন প্রার্থীর মধ্যে কোটিপতি প্রার্থীর সংখ্যা ৪৮১। অর্থাৎ শতাংশের হিসেবে (৪২%) এই বিষয়ে মহারাষ্ট্রের প্রার্থীদের তুলনায় অনেকটাই এগিয়ে আছেন হরিয়ানার প্রার্থীরা।

ফৌজদারি অপরাধের মামলা থাকা হরিয়ানার প্রার্থীরা

আর ফৌজদারি অপরাধের মামলা থাকা প্রার্থীর সংখ্যা হরিয়ানায় ১১৭। শতাংশের হিসেবে মহারাষ্ট্রের থেকে কম, ১০ শতাংশ।

দুই রাজ্যেরই প্রার্থীদের শিক্ষাগত যোগ্যতার কি হাল তা নিচের ইনফোগ্রাফিক্সেই স্পষ্ট -

মহারাষ্ট্র

হরিয়ানা

জনমত সমীক্ষা দুই রাজ্যেই অনেকটা এগিয়ে রেখেছে বিজেপি-কে। ভোটের ফল বের হওয়ার কথা ২৪ অক্টোবর। ওই দিনই বোঝা যাবে ইভিএম-এ বাজিমাত করল কারা।

মহারাষ্ট্র জনমত সমীক্ষা

হরিয়ানা জনমত সমীক্ষা