নির্বাচনকে বলা হয় গণতন্ত্রের উৎসব। ভারতে অধিকাংশ জায়গাতেই ভোট গ্রহণ করা হয় উৎসবের পরিবেশেই। তবে এই উৎসবে সবসময় সামিল হতে পারেন না সকলে। বিশেষ করে বিশেষভাবে সক্ষম যাঁরা, তাঁরা অনেক সময়ই বেশ সমস্যায় পড়েন। তবে নতুন ট্যাক্সি পরিষেবার দৌলতে অন্তত মহারাষ্ট্রের মুম্বই শহরে এদিন বিধানসভা ভোট গ্রহণে অন্য রকম ছবি দেখা গেল। বহু সংখ্যায় বিশেষভাবে সক্ষম মানুষ এদিন ভোট দিলেন মুম্বইয়ে। আর তা অনেকটাই সম্ভব হল হুইল চেয়ার ট্যাক্সির সৌজন্যে।

দুর্ঘটনায় বা দূরারোগ্য রোগে অনেকেই চলনক্ষমতা হারান। ভোটের দীর্ঘ লাইন, ভোট কর্মীদের প্রশিক্ষণের অভাব, সর্বোপরি যাতায়াতের সমস্যার কারণে এঁদের অনেকেই বুথমুখি হতে চান না। এইবার কিন্তু তাঁদের বুথে নিয়ে যেতে এগিয়ে এসেছে হুইল চেয়ার ক্যাব।

ওলা-উবার-এর মতোই অ্যাপ নির্ভর বেশ কয়েকটি ক্যাব পরিষেবা গত কয়েক বছরে তৈরি হয়েছে মুম্বইয়ে। বিশেষ ভাবে সক্ষম ব্যক্তিদের জন্যই তৈরি হয়েছে এই পরিষেবা। হুইল চেয়ারে বসা যে কেউ যাতে সহজেই উঠতে পারেন তার জন্য এই ক্যাবগুলিতে ব়্যাম্প থাকে। ভোটের দিন এই ধরণের ক্যাবের চাহিদা আরই বেশি দেখা গিয়েছে। বেলা ১২টার মধ্যেই এই রকম একটি ক্যাব সংস্থার হিসেবে মুম্বই শহরের ৬০০ জনকে তারা বুথে নিয়ে গিয়ে ভোট দেওয়ার ব্যবস্থা করে দিয়েছে। ভোট দেওয়া হয়ে গেলে আবার বাড়িতে নামিয়ে দিয়ে এসেছে।

যাতায়াতের জন্য বিশেষ ক্যাব চালু হয়ে গেলেও মহারাষ্ট্রে বিশেষভাবে সক্ষমদের ভোটদানের জন্য যথেষ্ট ব্যবস্থা রাখা হয়নি বলে অভিযোগ। এইবার মহারাষ্ট্রে মোট ২.২৪ লক্ষ বিশেষভাবে সক্ষম ভোটার নাম নথিভুক্ত করেছিলেন। তাদের জন্য যথেষ্ট ব্যবস্থা রাখা হয়নি বলে অভিযোগ। তারপরেও বেশ কিছু বুথে বিশেষ ব়্যাম্প, হুইল চেয়ার, বাড়ি থেকে নিযে আসা এবং ফেরার ব্যবস্থা রাখা হয়েছিল।