বাংলার ২৪ কার্তিক ১৪২৬ ইংরেজির ১১ নভেম্বর  ২০১৯ সোমবার,  সন্ধ্যা ৬টা বেজে ২ মিনিট অবধি থাকবে পূর্ণিমা। মঙ্গলবার পূর্ণিমা তিথি অত্যন্ত শুভ বলে মনে করা হয়। কার্তিক মাসের এই পূর্ণিমা তিথি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কার্তিক অমাবস্যার ঠিক ১৪ দিন পর আসে পবিত্র এই তিথি। এই তিথিতে স্বর্গে দেবতারা দীপাবলি উৎসব পালন করেন। শাস্ত্র মতে, এই তিথিতে দেবতারা মর্ত্যে এসে গঙ্গাস্নান করেন। 

আরও পড়ুন- কার্তিক মাসের পূর্ণিমা, কোন রাশির উপর কেমন প্রভাব ফেলবে দেখে নিন

মনে করা হয় এই তিথিতে গঙ্গাস্নান করলে সারা বছরের গঙ্গাস্নানের পূণ্যলাভ হয়। শাস্ত্রে উল্লেখ আছে, এই তিথি দেব-দীপাবলি উৎসব হিসেবে পরিচিত। এই দিনে দেবতারা পালন করেন দীপাবলি উৎসব। তাই মনের কামনা পূরণ করতে বিশেষ এই তিথিতেও প্রদীপ ভাসাতে পারেন। 

আরও পড়ুন- হাতের আঙ্গুল দেখেই চিনে নিন, কেমন ধরনের মানুষ তিনি

কার্তিক পূর্ণিমা এই দেব-দীপাবলি তিথিতে যদি দুঃস্থদের খাদ্য ও পোশাক দান করতে পারেন, তবে মহাপূণ্য লাভ হয়। এই তিথিতে লক্ষ্মী-নারায়ণের পুজো করলে সংসার ভরে ওঠে সমৃদ্ধিতে। এছাড়া বিশেষ এই তিথিতে পালিত হয় রাস যাত্রা। রাস যাত্রা সনাতন ধর্মালম্বীদের একটি বাৎসরিক উৎসব। রাস মূলতঃ শ্রীকৃষ্ণের ব্রজলীলার অনুকরণে বৈষ্ণবীয় ভাবধারায় অনুষ্ঠিত ধর্মীয় উৎসব। ভগবান কৃষ্ণ কার্তিক মাসের এই পূর্ণিমাতেই বৃন্দাবনে রাধা-সহ সখীদের মেতেছিলেন রাসলীলায়। শ্রীশ্রীচৈতন্যমহাপ্রভু পরবর্তীকালে এই উৎসব মহোৎসবে পরিণত করেন।