অনেক সংস্কৃতির মধ্যেই জ্যোতির্বিজ্ঞানের ঘটনাকে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। ভারতীয়, চীনা ও মায়া সভ্যতার অধিবাসীগণ মহাকাশ পর্যবেক্ষণের মাধ্যমে পার্থিব ঘটনাগুলির ভবিষ্যদ্বাণী করার জন্য এই বিষয়ের চর্চা এবং উন্নয়ন সাধন করেছিলেন। পশ্চিমে, জ্যোতিষশাস্ত্র প্রায়ই একজন ব্যক্তির ব্যক্তিত্বের ব্যাখ্যা করার জন্য এবং তার জন্মের সময় সূর্য, চন্দ্র, এবং অন্যান্য জ্যোতিষ্কগুলির অবস্থানের উপর ভিত্তি করে তার জীবনের ভবিষ্যদ্বাণী করার জন্য ব্যবহৃত হত। জ্যোতিষশাস্ত্র অতি প্রাচীন এবং এটি বিভিন্ন সময়ে পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে বিভিন্ন সভ্যতার মানবগোষ্ঠির দ্বারা চর্চিত, পরিবর্তিত ও পরিবর্ধিত হয়েছে। তাই কোন একটি বিশেষ সময়কে জ্যোতিষশাস্ত্রের সৃষ্টিকাল হিসেবে চিহ্নিত করা যুক্তিযুক্ত নয়।

আরও পড়ুন- অগ্রহায়ণ মাস কেমন প্রভাব ফেলবে মেষ রাশির উপর

জ্যোতিষশাস্ত্র মতে, কোন ব্যক্তির পছন্দ নির্ভর করে তাঁর রাশি চক্রের উপর। কোন ব্যক্তি কেমন ধরনের পোশাক পছন্দ করেন তাও রাশি ভিত্তিতেই নির্ধারিত হয়ে থাকে। তাই জ্যোতিষশাস্ত্রের এই ব্যাখা অনুযায়ী দেখে নেওয়া যাক, কোন রাশি অনুযায়ী মেয়েরা কেমন পোশাক পছন্দ করেন জেনে নেওয়া যাক-  

মেষ- এই রাশির জাতিকাদের কাছে সবচেয়ে প্রয়োজনীয় হল আরামদায়ক পোশাক। এরা পছন্দসই আরামদায়ক পোশাকেই বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন। 

আরও পড়ুন- শনিবারের সারাদিন কেমন কাটবে, দেখে নিন আজকের রাশিফল

বৃষ- এই রাশির জাতিকারা অত্যন্ত সাহসী হয়ে থাকেন। তবে পোশাক বাছাইয়ের ক্ষেত্রে এরা সাহসী পোশাক পড়তে বেশি স্বচ্ছন্দ্য় বধ করেন, এমনটা মোটেও নয়। বরং এরা সাহস করে একটু পুরনো ট্রেডিশন্যাল পোশাক পড়তেই বেশি স্বচ্ছন্দ্য বোধ করেন। এমনকী এরা শাড়ি পড়তেও বেশ পছন্দ করেন। 

মিথুন- এই রাশির মেয়েরা অত্যন্ত স্বাধীনচেতা। এদের কাছে ফ্য়াশন একবারেই ভিত্তিহীন। এদের যখন যা ভালো লাগে এরা তাই পড়েন। যে কোনও ধরনের পোশাকেই এরা খুব সহজেই ক্যারি করতে পারেন।  আপাতদৃষ্টিতে দেখতে গেলে এরা ট্রেন্ডসেটার।

কর্কট- এই রাশির জাতিকাদের পছন্দের তালিকায় রয়েছে সুতির কাপড়। এর বাইরে এরা কিছুই ভাবতে পারেন না। এরা একটু ঢিলেঢালা পোশাক পড়তে বেশি পছন্দ করেন। ট্রেন্ডিং পোশাকে নয় বরং কটনেই এরা তৈরি করেন আলাদা ধরণের ফ্যাশন। 

আরও পড়ুন- হজম শক্তি বৃদ্ধি থেকে রক্তাল্পতা, বহু সমস্যা সমাধানে কাজ করে মুক্তো

সিংহ- এই রাশির মহিলাদের পছন্দের তালিকায় রয়েছে পছন্দের পোশাক। যেই পোশাক ওদের ভালোলাগে, বা যেই পোশাকে ওদের মানায় সেটাই ওদের পছন্দের তালিকায়। এরা ট্রেন্ডিং পোশাক নিয়ে একদমই চিন্তিত নন।

কন্যা- এই রাশির জাতিকাদের প্রথম পছন্দ ফ্যাশনেবল পোশাক। ট্রেন্ডিং পোশাকের মধ্যে থেকেই এরা নিজেদের পছন্দটা বেছে নেন। এরা খুবই সাজতে পছন্দ করেন। তাই চলতি ট্রেন্ডের উপরেই এরা ভরসা রাখেন।  
 
তুলা- এই রাশির মেয়েদের পছন্দের তালিকায় থাকে বেশ কিছু পছন্দ সই রং। সেই রং এর বাইরে বেরিয়ে এরা অন্য কোনও রং-এর পোশাক পছন্দ করেন না। তবে এদের পছন্দের রং-এর মধ্যে রয়েছে কালো। আর এই ডার্ক শেডের পোশাকেই এরা হয়ে ওঠেন অনন্যা।

বৃশ্চিক- এই রাশির জাতিকারা অত্যন্ত সাহসী, তাই সাহসী পোশাকেই এরা বেশি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন। ফ্যাশন নিয়ে এরা নানা ধরনের এক্সপেরিমেন্ট করতে পছন্দ করেন। 

ধনু- এরা অত্যন্ত আত্মবিশ্বাসী। তাদের এই স্বভাবজাত বৈশিষ্ট্য তাঁদের স্বভাবের মধ্যে ফুঁটে ওঠে। এরা মানানসই পোশাক পড়তে বেশি স্বচ্ছন্দ্য বোধ করেন। অনেক সময় ক্যাজুয়াল পোশাকেই এদের বেশি আকর্ষনীয় লাগে।

মকর- এই রাশির মেয়েদের সঠিক ভাবে কোনও পছন্দের বাঁধন নেই। যখন যা মনে ধরে সেই পোশাকটাই পরেন। এঁদের মধ্যে সব থেকে বড় বিষয় হল, এরা যেই পোশাক পছন্দ করেন, সেই পোশাকেই এদের বেশ মানিয়ে যায়। এরা সবথেকে পছন্দ করেন আরামদায়ক পোশাক।

কুম্ভ- এই রাশির জাতিকাদের পছন্দের তালিকায় রয়েছে হালকা রং-এর পোশাক। এরা সাদা রং খুব বেশি পছন্দ করেন। হালকা রং এর মধ্যে ট্রেডিশন্যাল বা ট্রেন্ডিং পোশাকই এরা খুব ভালোবাসেন। এরা পোশাকের সঙ্গে মানাসই হালকা গয়না পড়তেও বেশ পছন্দ করেন। 
 
মীন- এরা পোশাক নিয়ে ধারনা অত্যন্ত সাধারণ। সুতি এদের পছন্দের তালিকায় প্রথম দিকেই রয়েছে। তাই মানানসই সুঁতির পোশাকেই এদের বেশি পছন্দ। এরা ফ্যাশন নিয়ে এক্সপেরিমেন্ট করতে বেশি পছন্দ করেন না।