জ্যেষ্ঠ মাসের কৃষ্ণপক্ষের একাদশীকে বলা হয় অপরা একাদশী। এই একাদশীতে উপবাস রেখে ভগবান বিষ্ণু ও লক্ষ্মীর উপাসনা করলে, দেবী প্রসন্ন হন এবং সাধককে অপরিসীম ধনবান করে তোলেন। তাই একে অপরা একাদশী বলা হয়। এই বছর এই তিথি পালন করা হবে আজকে অর্থাৎ ১৮ মে সোমবার। ভগবান বিষ্ণুর কৃপা পাওয়ার জন্য এই একাদশী উপবাসের কথা পুরাণেও উল্লেখ রয়েছে। 

আরও পড়ুন- জৈষ্ঠ্য মাস কেমন প্রভাব ফেলবে মিথুন রাশির উপর, দেখে নিন

পদ্মপুরাণ অনুসারে, অপরা একাদশীতে যিনি উপবাস পালন করেন, সেই ব্যক্তিকে ভূতযোনিতে ভুগতে হয় না। অপরা একাদশীকে অচলা একাদশী, ভদ্রকালী একাদশী এবং জলক্রিদা একাদশীও বলা হয়। তাই এই দিরে রীতি মেনে উপবাস পালন করা উচিত। এই ব্রত পালনের মাধ্যমে ব্যক্তি সমস্ত পাপ থেকে মুক্তি পান, যার কারণে তাকে ভূতযোনিতে প্রবেশ করতে হয় না। পদ্মপুরাণে কথিত আছে যে, এই একাদশীর উপবাস আর্থিক ঝামেলা দূর করে। 

আরও পড়ুন- তুলা রাশির দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে নাজেহাল অবস্থা হবে, দেখে নিন আপনার রাশিফল

ধর্মগ্রন্থে উল্লেখ রয়েছে যে, অন্যের মন্দ, মিথ্যা, জালিয়াতি, প্রতারণা এমন পাপ  কাজে লিপ্ত হয়, যার কারণে সেই ব্যক্তিকে অন্য জন্মেও সেই ফল বহন করতে হয়। এই একাদশীতে উপবাস করলে এই পাপের প্রভাব হ্রাস পায়। একাদশীর দিন স্নান করে ভগবান বিষ্ণুর পুজো করুন। পুজোয় তুলসী পাতা, চন্দন, গঙ্গার জল এবং ফুল ও ফল উত্সর্গ করুন। এই দিনে, অন্যের মন্দ, মিথ্যা এবং প্রতারণা থেকে দূরে থাকুন। কেউ বিপদে পড়ে সাহায্য চাইলে তাঁকে সাহায্য করুন। যাঁরা কোনও কারণে উপবাস রাখেন না, তাঁদের একাদশীতে ভাত জিনিস খাওয়া উচিত নয়।