সাধারণ আবেগে যাদের সহজেই চোখে জল আসে পরিচিত মহলে তাঁদের নিয়ে বেশ মসকরা করে বন্ধু-বান্ধবরা। অনেকে আছেন যাঁরা বাইরে থেকে বুঝতে দেয় না তবে খুব মানসিক চাপ নিয়ে ফেলেন। আবার অনেকেই আছেন যাঁদের অপরের সমস্যাতেও চোখে জল আসে, তাঁদের মধ্যে রয়েছে বিশেষ কিছু গুণ। মনোবিদদের মত, জীবনে আসা খারাপ পরিস্থিতিতেই অনেকেই সহজে ভেঙ্গে পড়েন। 

আরও পড়ুন- জ্যোতিষ মতে এই ধাতুর আংটি বহু সমস্যা সমাধানে সক্ষম, বাঁধা কাটিয়ে ওঠা যায় সহজেই

মন এর সঠিক সংজ্ঞা সম্ভব নয়। তবে এই ভাবে বলা যেতে পারে, মন হলো এমন কিছু যা নিজের অবস্থা এবং ক্রিয়াগুলি সম্পর্কে সচেতন। দর্শনশাস্ত্রের একটি অন্যতম কেন্দ্রীয় ধারণা হল মন। মন বলতে সাধারণভাবে বোঝায় যে, বুদ্ধি এবং বিবেক বোধের এক সমষ্টিগত রূপ যা চিন্তা, অনুভূতি, আবেগ, ইচ্ছা এবং কল্পনার মাধ্যমে প্রকাশিত হয়। মন কি এবং কিভাবে কাজ করে সে সম্পর্কে অনেক রকম তত্ত্ব প্রচলিত আছে। মনের স্বরূপ লক্ষণ হলো চেতনা যার থেকে মনকে জড়ো থেকে আলাদা করা হয়।

আরও পড়ুন- এপ্রিল মাস কেমন কাটবে মেষ রাশির, দেখে নিন

যাঁরা অল্পতেই কেঁদে ফেলেন, তাঁরা আসলে খুব সাহসী। শুনতে অবাক লাগলেও মনোবিদদের মতে, সহজে যারা কেঁদে ফেলেন তাঁদের অনেকেই ভীতু ভাবেন, তবে তাঁরা মোটেও ভীতু নন। এঁরা যথেষ্ট সাহসী হন। জীবনের সমস্যার মুখোমুখি তারা সহজেই করতে পারেন। যারা অল্পতেই কেঁদে ফেলেন, তাঁরা খুব সংবেদনশীল হন। তাঁদের দেখে অনেকের হাসি পেলেও মনে রাখবেন, আপনার বিপদের সময়ে সাহায্যের হাত এই মানুষগুলোই সবার আগে বারিয়ে দেবে। মনোবিদদের মতে, যারা অল্পতেই কেঁদে ফেলেন তাঁরা জীবনের খারাপ সময়গুলো সহজেই কাটিয়ে ওঠেন। তাঁরা যাবতীয় আক্ষেপ ঝেড়ে জীবনে এগিয়ে যান। এটি খুব পজেটিভ দিক। এই ধরণের ব্যক্তিত্বরা খুব আত্মবিশ্বাসী হন।