জ্যোতিষ মতে উচ্চশিক্ষা ভাগ্য এবং জন্মছকের সঙ্গে সম্পর্কিত। রাশিফলের নবম ঘর এটি উপস্থাপন করে। বৃহস্পতি, সূর্য এবং বুধ গ্রহগুলি এর সঙ্গে সুস্পষ্টভাবে সম্পর্কিত। উচ্চ শিক্ষায় সাফল্যের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ  হল একটি নির্দিষ্ট বিষয়ে মান। বৃহস্পতির সহায়ক বা পরামর্শদাতা না হয়ে উচ্চ শিক্ষায় সাফল্য পাওয়া কঠিন। বৃহস্পতি এই কাজকে সহজ করে তোলে। বৃহস্পতির অনুগ্রহ পেতে শৃঙ্খলাবদ্ধ ও বাধ্য থাকা উচিৎ।

আরও পড়ুন- সিংহ রাশির কতটা উন্নতি হবে মাঘ মাসে, দেখে নিন

অন্য দিকে বুধে বিচক্ষণতা এবং কৌশল একটি ফ্যাক্টর। বুধ গ্রহ শক্তিশালী হলে বিষয়টি বোঝার এবং জানার ক্ষমতা বাড়ে। গণেশের উপাসনা করে বুধকে শক্তিশালী করা হয়। বুধকে একটি তরুণ ও কিশোর গ্রহ হিসাবেও বিবেচনা করা হয়। উচ্চশিক্ষা সহকর্মীদের সঙ্গে ভাল আচরণ এবং পারস্পরিক সু-সম্পর্ক বিনিময়ের দ্বারা জোরদার হয়।

আরও পড়ুন- বুধবারে ৩ রাশির কোনও মূল্যবান দ্রব্যের প্রাপ্তিযোগ হতে পারে, দেখে নিন আপনার রাশিফল

আবার প্রশাসন ও ব্যবস্থাপনার সঙ্গে সূর্যের সম্পর্ক রয়েছে। আপনার সাফল্যে এবং উচ্চ শিক্ষায় ভাল মূল্যায়নে সূর্যের দুর্দান্ত অবদান থাকে। শিক্ষার্থীদের ভাল স্কোরের জন্য প্রতিদিন সূর্যকে পুজো করা উচিত। সূর্যকে অর্ঘ্য অর্পণ করা উচিত।  সূর্যও ভগবান বিষ্ণুর সঙ্গে সম্পর্কিত। বিষ্ণু হলেন জগতপালক। সবাই করুণা দেখাতে চলেছে। উচ্চ শিক্ষায় সেরা সাফল্য কেবল তাঁর অনুগ্রহে পাওয়া যাবে। ঈশ্বরের প্রতি অটল বিশ্বাস থাকলে সূর্যদেব সন্তুষ্ট হন। তাই শিক্ষার্থীর উচিত নিজের অধ্যয়নের প্রতি এবং বৃহস্পতির প্রতি অটল বিশ্বাস ও শ্রদ্ধা।