শাস্ত্র অনুসারে, যাদের জীবনে সব সময় নানান সমস্যা, দারিদ্র্যতা ও রোগ সংক্রান্ত সমস্যা লেগেই রয়েছে তাদের উচিত ভগবান শনি দেবের উপাসনা করা। পৌরাণিক বিশ্বাস অনুসারে, শনি দেবের উপাসনা করলে জীবনের সমস্ত ঝামেলা দূর হয়। এ ছাড়া শনি বারে আপনি শনি দেবের প্রিয় কালো জিনিস যেমন কালো তিল, সরষে অথবা কালো কাপড় ইত্যাদি দান করতে পারেন। একই সঙ্গে শনি দেবের মন্দিরের কাছে অশ্বত্থ গাছে তেল ঢালুন। অথবা সেই তেল দুঃস্থদের দান করুন। শনিবার কালো তিল এবং গুড় পিঁপড়াকে খাওয়ালে শনি দেব সন্তুষ্ট হন বলে মনে করা হয়।

শনিদেবকে ভগবান সূর্য এবং তাঁর স্ত্রী ছায়ার সন্তান হিসাবে মনে করা হয়। নয়টি গ্রহের পরিবারের মধ্যে, সবচেয়ে নিষ্ঠুর গ্রহ হিসাবে বিবেচিত হয় শনি। তবে বাস্তবে শনি হলেন ন্যায় ও কর্মের দেবতা। আপনি যদি কারও খারাপ না ভাবেন এবং কাউকে প্রতারণা না করেন এবং কারও উপর অত্যাচার না করেন, অর্থাৎ আপনি কোনও খারাপ কাজের সঙ্গে লিপ্ত না থাকেন তবে আপনাকে বড় বাবাকে ভয় পাওয়ার কোনও প্রয়োজন নেই। শনিদেব কখনও মানুষের ক্ষতি করেন না।

শনিবারে বড় বাবার উপাসনার নিয়ম-

শনিবারে সকালে স্নান সেরে নিন। এর পরে কোনও কাঠের বোর্ডে কালো কাপড় রাখুন। এই কাপড়ে শনি দেবের একটি মূর্তি বা ছবি বা একটি সুপারি রাখুন। এর পরে এর দু'দিকে খাঁটি ঘি ও তেল প্রদীপ জ্বালিয়ে ধূপ জ্বালান। এইবার শনিদেবের প্রতিকৃতিতে জল, দুধ, পঞ্চমৃত, ঘি, সুগন্ধি দিয়ে স্নান করান। শনি দেবের পুজোতে সাধ্যমত বাতাসা, ফল মিষ্টি দিয়ে নৈবেদ্য সাজিয়ে দিন। নৈবেদ্য দেওয়ার আগে তাদের উপর সিন্দুর, কুমকুম ও কাজল লাগিয়ে নীল বা কালো ফুল অর্পণ করুন। নৈবেদ্য উত্সর্গ করার পরে, ফলের সঙ্গে ফুল দিন। পুজোর সময় শনি দেবের প্রণাম মন্ত্র পাঠ করুন। যে কোনও পঞ্জিকায় প্রণাম মন্ত্র পেয়ে যাবেন।