ফাল্গুন বা ফাগুন বাংলা সনের একাদশ মাস। এই মাস বসন্তের আগমনী বার্তা দেয়। গ্রেগরীয় বর্ষপঞ্জী অনুযায়ী ফাল্গুন মাস মূলত ১৩ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হয়। পাশাপাশি জ্যোতিষ শাস্ত্র অনুসারে কোনও ব্যক্তির আচরণ এবং তাঁর চরিত্রের বৈশিষ্ট্য নির্ভর করে সেই ব্যক্তির জন্ম সময়, কাল বা জন্ম মাসের উপর। জাতকের ভাগ্য সম্পর্কে অনেক কিছুই বলে দেওয়া সম্ভব তাঁর জন্ম, জন্মবার এবং জন্মমাস থেকে। জ্যোতিষশাস্ত্র অনুযায়ী, ফাল্গুন মাসে জন্ম হলে, জেনে নিন সেই জাতক বা জাতিকার ব্যক্তিত্ব সম্বর্কে।

ফাল্গুন মাসে জন্ম হলে এরা জনসাধারণের মধ্যে থেকে কাজ করা পছন্দ করে। তবে এরা নিজেদের কাজ গোপন রাখতেই বেশি পছন্দ করে।  এদের বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই কম বয়সে বিবাহের যোগ দেখা যায়। এই মাসে জন্ম হলে সেই জাতকরা বন্ধুত্ব করতে খুব পছন্দ করেন। এদের জীবনের প্রথম ভাগ অতি কষ্টের মধ্যে দিয়ে কাটে। এরা কোনও অবস্থাতেই অমর্যাদাপূর্ণ কাজ করে না। এদের মানসিকতা উদার প্রকৃতির। এরা নিজেদের চেয়ে কম সামাজিক মর্যাদা সম্পন্ন মানুষদের সঙ্গে মেলামেশা করতে বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে। 

ফাল্গুন মাসে জন্ম হলে যে কোনও ক্ষেত্রেই পরিচালনা করার ক্ষমতা এদের থাকে। এদের দীর্ঘ ও সুঠাম দেহী, লম্বা ও চিন্তাশীল হয়। তবে বিবাহিত জীবনে মানসিক অশান্তির যোগ থাকে। জীবনে প্রতিষ্ঠিত হতে হাড় ভাঙা খাটুনি খাটতে হয়। তবে জীবনের মধ্যভাগ থেকেই এরা পরিস্থিতি সামলে নিয়ে উন্নতি লাভ করেন। এরা খুবই ভদ্র স্বভাবের হয়ে থাকে।  যে কোনও কাজ করার আগে প্রচুর চিন্তা-ভাবনা করে তারপরেই সিদ্ধান্ত নেন।  এই মাসে যাদের জন্ম তারা সব সময় বিচার বিবেচনা করে তবে কথা বলে। এরা শিল্প রুচিসম্পন্ন, আলাপী, ভদ্র, বিনয়ী স্বভাবের হয়ে থাকে।