Asianet News BanglaAsianet News Bangla

Chanakya Niti: কোনও ব্যক্তিকে যাচাই করার সময়, এই ৪ বিষয়ে অবশ্যই বিবেচনা করুন

চাণক্য-কে সেরা জীবন প্রশিক্ষক এবং দার্শনিক হিসাবে দেখা হয়। তাঁর কথা থেকে মানুষ আজও অনুপ্রেরণা নেয়। এর থেকে অনুমান করা যায় যে, আচার্য বুদ্ধিমত্তার মাধ্যমে তাঁর সময়ে কী কী কীর্তি স্থাপন করেছিলেন। 

Chanakya Says when examining a person these 4 things must be considered BDD
Author
Kolkata, First Published Dec 4, 2021, 3:36 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

যুগ যুগ পেরিয়ে গেলেও আচার্য চাণক্য-কে সেরা জীবন প্রশিক্ষক এবং দার্শনিক হিসাবে দেখা হয়। তাঁর কথা থেকে মানুষ আজও অনুপ্রেরণা নেয়। এর থেকে অনুমান করা যায় যে, আচার্য বুদ্ধিমত্তার মাধ্যমে তাঁর সময়ে কী কী কীর্তি স্থাপন করেছিলেন। আচার্য কোথাও বা সেই সময়ে যে বিষয়গুলি লিখেছিলেন তা আজকের সময়ের সঙ্গে প্রাসঙ্গিক।
আচার্য তাঁর চাণক্য নীতিশাস্ত্র রচনা করেন। এই রচনার মাধ্যমে তিনি সুখী জীবনের রহস্য মানুষের কাছে বলেছেন এবং জীবনের প্রায় প্রতিটি দিককে স্পর্শ করার চেষ্টা করেছেন। আচার্যের এই বইটি খুবই জনপ্রিয়। এতে লেখা বিষয়গুলো মেনে চললে সব সমস্যা এড়ানো যায়। এই নীতি-তে আচার্য একজন ব্যক্তিকে পরীক্ষা বা যাচাই করার জন্য কী কী বিষয়ে নজর রাখা উচিত তা জানিয়েছেন। এগুলোর ভিত্তিতে আপনি যে কোনও মানুষকে সহজেই বুঝতে পারবেন এবং জীবনের সকল প্রতারণা এড়াতে পারবেন।
আচার্য বলেছেন যে-
'যথ চতুর্ভিঃ কনকম পরীক্ষ্যতে নিদর্শনম্ চেদেন্ততপতদানাইঃ
ও চতুর্ভিঃ পুরুষ্যম পরীক্ষ্যতে ত্যাগেন শীলেন গুণেন কর্মনা'।
এটি চাণক্য নীতির পঞ্চম অধ্যায়ের দ্বিতীয় শ্লোক। এই শ্লোকে আচার্য যে কোনও মানুষকে পরীক্ষা করার জন্য ৪টি পদ্ধতি দিয়েছেন।
১) ত্যাগ করার মানসিকতা দেখুন-
কাউকে বিশ্বাস করার আগে দেখতে হবে, সেই ব্যক্তির মধ্যে কতটা ত্যাগ আছে। যদি একজন ব্যক্তি অন্যের জীবনে সুখ আনতে তাঁর সুখ বিসর্জন দিতে পারেন, তবে এমন ব্যক্তিকে বিশ্বস্ত বলে বিবেচনা করা যেতে পারে কারণ তাঁর অন্যের দুঃখ বোঝার ক্ষমতা রয়েছে।
২) চরিত্র-
আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ গুণ হল চরিত্র। যার চরিত্র ভালো নয়, তাকে ঘরে বসারও যোগ্য মনে করা হয় না। তাঁর উপর একটু ভরসা করা আপনার জন্য মারাত্মক হতে পারে। তাই মানুষের চরিত্র দেখেই তাদের বিশ্বস্ত মনে করা উচিত।
৩) বৈশিষ্ট্য দেখুন-
গুণ এবং ত্রুটিগুলিও একজন ব্যক্তিকে চিহ্নিত করে। যারা অলস, রাগান্বিত, অহংকারী বা মিথ্যা বলার অভ্যাস আছে, তাদের কখনই বিশ্বাস করা উচিত নয়। যারা শান্ত, গম্ভীর এবং সত্য ও নীতির পথে চলে তারাই বিশ্বস্ত হতে পারে।
৪) কর্মফল দেখুন-
যারা দ্বীনের পথে চলে অর্থ উপার্জন করে, অন্যকে সাহায্য করে তাদের বিশ্বাস করা যায়। কিন্তু যারা অধার্মিক, স্বার্থপর, নিজের সুবিধার কথা চিন্তা করে এবং ভুল পথে অর্থ উপার্জন করে, তাদের কখনই বিশ্বাস করা উচিত নয়।

আরও পড়ুন- ২০২২ সালে এই রাশিগুলির নিজস্ব বাড়ি থাকবে, জেনে নিন আপনার ভাগ্য কি বলছে

আরও পড়ুন- মহাভারতের মহাযুদ্ধের পর কেন অর্জুনের রথ পুড়ে ছারখার হয়ে গিয়েছিল, জেনে নিন অজানা গল্প

আরও পড়ুন- এই ৩ রাশির মানুষ খুব সহজেই রেগে যায়, দেখে নিন তারা কারা

আরও পড়ুন- ২০২২ সালে ৮ রাশির উপর থাকবে শনির কু-নজর, জেনে নিন সেই তালিকা

আরও পড়ুন- ডিসেম্বর মাস থেকেই এই ৩ রাশির হাতে আসবে প্রচুর টাকা, বাড়বে ধন-সম্পদও

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios