বাড়িতে নেতিবাচক শক্তি প্রবেশ করলে বিভিন্ন ধরণের সমস্যা দেখা দেয়। নেতিবাচক শক্তি পরিবারের সমস্ত সদস্যকে প্রভাবিত করে। তাই সময় মতো এই শক্তি দূর করতে ব্যবস্থা নেওয়া উচিত। নবরাত্রিতে বা  দেবীপক্ষে দুর্গার পুজো নেতিবাচক শক্তি নষ্ট করতে খুব কার্যকর। নবরাত্রির উত্সবটি পুরও নয় দিন পালিত হয়। শাস্ত্র মতে, আশ্বিন মাসের শুক্লপক্ষের প্রতিপাদ তিথিতে শুরু হয়ে নবমী তিথিতে শেষ হয়। এই নয় দিনে মা দুর্গার বিভিন্ন রূপের উপাসনা করা হয়। মা দুর্গার উপাসনা ঘরের নেতিবাচক শক্তি ধ্বংস করতে সক্ষম।

আরও পড়ুন- কেন দেবীপক্ষে কুমারী পুজো করা হয়, জেনে নিন এর গুরুত্ব

বাড়িতে নেতিবাচক শক্তি আছে কিনা তা খুঁজে বের করা খুব গুরুত্বপূর্ণ। কিছু লক্ষণগুলির ভিত্তিতে, এটি সনাক্ত করা যায় যে বাড়িতে নেতিবাচক শক্তি আছে কিনা। ঘরে যখন নেতিবাচক শক্তি থাকে, তখন বিভেদ, উত্তেজনার পরিবেশ থাকে। বাড়ির সদস্যদের মধ্যে সমস্যা বিরাজ করে। বড়দের প্রতি ছোটদের শ্রদ্ধা হ্রাস পেতে থাকে। রোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দেয় এবং অর্থের ক্ষতির সম্ভাবনাও থাকে।

তাই এই সময় নবরাত্রি পুজো বিভিন্ন ধরণের সমস্যা দূর করে। প্রথম দিন থেকেই কিছু নিয়ম পালন করা উচিত। মায়ের কোনও মূর্তি বা ছবি, মায়ের পদ স্থাপন করে প্রতিষ্ঠিত করা উচিত। এর পর প্রদীপ শিখা জ্বালানো উচিত। এই প্রদীপের জ্যোতি টানা নয় দিন জ্বালানো উচিত। ঘরের নেতিবাচক শক্তি এই জ্যোতি দূর করতে সক্ষম। নবারাত্রীতে আখন্দ জ্যোতির বিশেষ তাত্পর্য রয়েছে। এই শিখা একটানা ৯ দিন জ্বালিয়ে রাখলে সমস্ত ধরণের খারাপ বাতাস ধ্বংস হয়। এই আলো ঘরে ধনাত্মক শক্তি তৈরি করে। যা সকল ধরণের সমস্যা দূর করে। নবরাত্রির উত্সব চলাকালীন পরিচ্ছন্নতার বিষয়েও যত্ন নেওয়া উচিত।