শনিবার থেকেই মোটামুটিভাবে শুরু হয়ে গেল শারদীয় উৎসব। মহালয়ার সঙ্গে সরাসরি দুর্গাপূজার সম্পর্ক না থাকলেও এদিন থেকেই শুরু হল দেবীপক্ষ। পশ্চিমবঙ্গের পাশাপাশি ওপাড় বাংলা অর্থাৎ বাংলাদেশেও এদিন থেকেই শুরু হয়ে গেল পুজো শুরুর অপেক্ষা। এদিন মহালয়া উপলক্ষ্যে এক দুর্দান্ত অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল ঢাকার কেন্দ্রীয় মেলা প্রাঙ্গনে।

এদিন মহানগর সর্বজনীন পূজা কমিটির উদ্যোগে ভোর সাড়ে পাঁচটায় ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দির মেলা প্রাঙ্গনে কেন্দ্রীয় পূজামণ্ডপে চণ্ডীপাঠ, আগমনী সঙ্গীত অনুষ্ঠিত হয়। উপস্থিত ছিলেন ভারতীয় হাইকমিশনার রীভা গঙ্গোপাধ্যায় দাস।

শুধু ঢাকাতেই নয় মহালয়া উপলক্ষে এদিন বাংলাদেশের বিভিন্ন মন্দির ও পূজা কমিটি নানান কর্মসূচি পালন করেছে। মন্দিরে মন্দিরে ঘট স্থাপনার পাশাপাশি আয়োজিত হয় বিশেষ পূজাও। ভোর থেকেই শঙ্খধ্বনি এমনকী বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্রের কন্ঠে 'মহিষাসুরমর্দিনী' পাঠও শোনা গিয়েছে।

এই বছর বাংলাদেশে মোট ৩১০০০ টি মণ্ডপে দুর্গাপূজা হচ্ছে। গতবছরের তুলনায় মণ্ডপের সংখ্যা বেড়েছে প্রায় ১০০০ টি। শুধু রাজধানী ঢাকাতেই পুজোর সংখ্যা বেড়েছে ২৩৭টি। পূজামণ্ডপগুলিতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষার জন্য প্রায় সাড়ে তিন লক্ষ পুলিশ নিযুক্ত করা হবে।