বাংলাদেশে ক্রমশই ভয়াবহ আকার ধারণ করছে ডেঙ্গু। বাংলাদেশের বিপুল সংখ্যক মানুষই পড়েছেন ডেঙ্গুর কবলে। রাজধানী ঢাকা বাদে অন্যান্য জেলাগুলিতে ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমশই বাড়ছে। এদিন ঢাকায় আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৯৯৬জন, যা আগের দিনের তুলনায় খানিকটা কমেছে বলে বলছে রিপোর্ট।

এখনও পর্যন্ত পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে, বাংলাদেশে শুক্রবার পর্যন্ত ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা ২১,২৩৫ জন। বৃস্পতিবার প্রায় ৩,৪৬৪ জন মানুষ ডেঙ্গুর কারণে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিল। শুক্রবার দিন সেই সংখ্যাটা বেড়ে হয়েছে ৪,৯১০। সেখানকার স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুসারে, ইতিমধ্যেই অন্তত ৫০ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে খবর পাওয়া গিয়েছে। 

বাংলাদেশের ডেঙ্গুর প্রভাব পড়ে পশ্চিমবঙ্গে সীমান্ত বসবাসকারী মানুষদের ওপরেও। এদিন মুখ্যমন্ত্রী  মমতা বন্দোপাধ্য়ায় মন্তব্য করেন যে, বাংলাদেশে বাড়তে থাকা ডেঙ্গুর প্রকোপই এরাজ্যে ডেঙ্গু বৃদ্ধির কারণ। তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশে ডেঙ্গু খুবই ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। বাংলাদেশ যেহেতু প্রতিবেশী দেশ তাই সেখানে কিছু ঘটলে তার প্রভাব সীমান্ত পেরিয়ে এখানেও পড়বে বলে জানিয়েছেন তিনি। 

এদিন মমতা বন্দোপাধ্যায় আরও বলেন, কয়েকটি জিনিস আছে যা অপ্রতিরধ্য। সেখানকার মশা খুব সহজেই সীমানা পেরিয়ে এরাজ্যে প্রবেশ করতে পারে। আবার, এখানকার মশাও সেখানে চলে যেতে পারে। এখনও পর্যন্ত পাওয়া খবর অনুসারে কলকাতায় প্রায় ৭০০ মানুষ ডেঙ্গুতে আক্রান্ত। রাজ্যের একাধিক সরকারি এবং বেসরকারি হাসপাতালে তাঁরা ভর্তি রয়েছেন। ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে এরাজ্যে বেশকিছু মানুষের মৃত্যুর খবরও উঠে এসেছে।