দীর্ঘ পাঁচ বছর আগে ক্যান্সারের সঙ্গে দেড় বছরের লড়াই করে ২০১৫ সালে মারণ রোগকে হারিয়ে জয়ী হয়েছিলেন টলি অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা।  ফের পাঁচ বছরের মাথায় মারণ রোগে আক্রান্ত হলেন  'জিয়ন কাঠি' খ্যাত অভিনেত্রী। যুদ্ধ  যেন অবিরাম চলেই যাচ্ছে। এই লড়াই কবে শেষ হবে তারই অপেক্ষায় দিন গুনছে টলি অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা। আচমকা কাঁধে  মারাত্মক ব্যথা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন ঐন্দ্রিলা। সম্প্রতি দিল্লির এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন জিয়ন কাঠি-র  অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা। অভিনেত্রীর ডানদিকের ফুসফুসে টিউমার হয়েছে। এবং সেখান থেকে ব্যথার সূত্রপাত। অভিনেত্রীর বায়োপসি রিপোর্টে জানা গেছে  ফের ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছেন অভিনেত্রী।

আরও পড়ুন-মালাইকার 'Big Size' নিতম্বকে কি টেক্কা দিচ্ছেন জাহ্নবী, ব্যাকলেসে শরীরী মোচড় শ্রীদেবী কন্যার...

অদম্য জেদ এবং বাঁচার প্রবল ইচ্ছা নিয়ে ফের মারণরোগকে হারিয়ে দিতে বদ্ধপরিকর ঐন্দ্রিলা। কয়েকদিন আগে নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায়া লাইভে এসে ভক্তদের সঙ্গে রোগের কথা শেয়ার করেছেন অভিনেত্রী। কিছু কথা বলতে গিয়ে  প্রকাশ্যে হাউ হাউ করে কেঁদে ফেলেন অভিনেত্রী। এবং সকলকেই ঠাকুরের কাছে প্রার্থনা করতে বলেন অভিনেত্রী। নয়া রোগ নিয়ে অনুরাগীরাও যথেষ্ঠ চিন্তিত। সকলেই তার দ্রুত আরোগ্য কামনা করেছেন। মুহূর্তের মধ্যে ঝড়ের গতিতে ভাইরাল হয়েছে তার এই ভিডিও।

 

 

অভিনেত্রী জানিয়েছেন, ক্যান্সার হয়েছে মানেই মরে যাব, এই ভাবনাটা সবার আগে ঝেড়ে ফেলতে হবে। মন শক্ত করেই লড়াই শুরু করলেন অভিনেত্রী। দিল্লির অ্যাপেলো হাসপাতালের বিছানায় শুয়েই একটি ছবি পোস্ট করেছেন ঐন্দ্রিলা। যেখানে ক্যাপশনে লিখেছেন, 'লড়াই শুরু হয়ে গিয়েছে।' অনুরাগীরা সকলেই তার আরোগ্য কামনা করেছেন।

 


এই প্রথমবার নয়, এর আগেও টেন্টস ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছিলেন অভিনেত্রী। যা খুবই বিরল একটি রোগ। দীর্ঘ দেড় বছরের লড়াই করে ২০১৫ সালে ক্যান্সারে জয়ী হয়েছিলেন। ১৬ টি কেমোথেরাপি এবং ৩৩ টি রেডিয়েশেনের পর ক্যান্সার মুক্ত হয়েছিলেন ঐন্দ্রিলা।কীভাবে এই নয়া রোগ বাসা বাঁধল অভিনেত্রীর শরীরে তা নিয়ে উদ্বিগ্ন ভক্তমহল। অভিনেত্রীর মা প্রথমসারির সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, সরস্বতী পুজোর আগের দিন প্রচন্ড কাঁধে ব্যথা শুরু হয় ঐন্দ্রিলা। সেদিন শ্যুটিংয়ে ছিলেন অভিনেত্রী। বাধ্য হয়েই তড়িঘড়ি বাড়ি আসেন অভিনেত্রী। তারপর ঐন্দ্রিলার দিদি, যিনি পেশায় একজন চিকিৎসক তিনি কিছু ওষুধ দেন কিন্তু তাতেও কাজ হয়নি।

 

 

তারপরই আর দেরি না করে দিল্লিতে চিকিৎসা করাতে আসার সিদ্ধান্ত নেন ঐন্দ্রিলা। তারপরেই বায়োপসি রিপোর্টের ধরা পড়েছে ক্যান্সার।  মারণ রোগ ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করে শুধু অভিনয়ে নয় সমানতালে পড়াশোনাটাও চালিয়েছেন ঐন্দ্রিলা।  ছোট পর্দায় অভিনয়ের পাশাপাশি বড় পর্দাতেই অভিনয় করতে দেখা গেছে ঐন্দ্রিলাকে। ঝুমুর ধারাবাহিক দিয়ে কেরিয়ার শুরু করেন ঐন্দ্রিলা। আপাতত জীবন জ্যোতি ধারাবাহিকে লিড রোলে দেখা গেছে অভিনেত্রীকে।সুস্থ হয়ে আবার কবে রূপোলি পর্দায় ফিরবেন ঐন্দ্রিলা তার কামনায় গোটা ভক্তমহল।