সকলের প্রিয় দুই চরিত্র ফেলুদা ও প্রফেসর শঙ্কু। সত্যজিৎ রায়ের সৃষ্টি করা দুই সাহিত্য জগতের সুপারস্টার। যাদের বুদ্ধির জোরে কাবু আট থেকে আশি। বাঙালির খুব প্রিয় ও কাছের এই দুই চরিত্রই এবার একই সঙ্গে হাজির হবেন দর্শক দরবারে। মাত্র একটা টিকিট কাটলেই মিলবে দুজনের দর্শন, ঠিক কীভাবে, এটাই ভাবছেন তো! এনাদের তো একসঙ্গে কোনও গল্প নেই, তবে পর্দায় কীভাবে তাঁরা আসছেন! খোলসা করলেন পরিচালক সন্দীপ রায়। 

না, এতে অবাক হওয়ার মত কিছুই নেই। কারণ এক সঙ্গে আসলেও তাঁরা থাকছেন না এক ফ্রেমে। মানে, ধরুন যাঁরা চার, কিংবা তিনকন্যার কথা এই মুহূর্তে মনে করতে পারছেন, তাঁদের জন্য বিষয়টা সহজ। অর্থাৎ দুই ভিন্ন গল্পকেই ছবির দুই অর্ধে দেখানো হবে। দুটি ছবি নিয়ে তৈরি হবে একটি তিন ঘণ্টার শো। এবার আশা করি অনেকের কাছেই পরিষ্কার। হাফ টাইমের আগে একটি গল্প, এবং হাফ টাইমের পরে আরেকটি গল্প। 

 

শীঘ্রই শুরু হবে ছবির কাজ। প্রযোজনাতে থাকছে এসভিএফ, আর ছবির পরিচালনাতে থাকছেন সন্দীপ রায়। বেশ কয়েক বছরের বিরতীর পরই আবারও পর্দায় এই জনপ্রিয় চরিত্রদের নিয়ে আসছেন তিনি। সম্ভাব্য মুক্তির সময় স্থির করা হয়েছে আগামী বছরের গ্রীষ্মের ছুটি। তবে এই ছবির খবর 
ঘোষণা করা মাত্রই আবারও উঠে আসে প্রশ্ন, ফেলু মিত্তিরের চরিত্রে এবার কে অভিনয় করছেন, যদিও এই নিয়ে এখনও কিছু খোলসা করেননি কোন পক্ষই।