দুসপ্তাহর ওপর সময় পার। এখনও স্বস্তি ফিরছে না ফেলুদাকে ঘিরে। একের পর এক উঠে আসা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের স্বাস্থ্যের খবর উব্দেগ বাড়িয়ে তুলেছিল সাধারণের মনে। চলতি মাসের শুরুতেই করোনার উপসর্গ দেখা দেয়। এরপরই ধীরে ধীরে অসুস্থ হয়ে পড়েন প্রবীণ অভিনেতা। ভর্তি করা হয় হাসপাতালে। তারপরই শুরু হয় এক জীবন মরণ লড়াই। মনের জোর ও সকলের প্রার্থনার বলেই তিনি কয়েকদিনের মধ্যে কাবু করে নেন করোনাকে। 

তবে সেখানেই শেষ নয়। শরীর করোনা মুক্ত হলেও, পরবর্তীতে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের স্বাস্থ্যের অবস্থা ক্রমেই খারাপ হতে থাকে। বাড়তে থাকে চিন্তা। কিন্তু সেই পরিস্থিতি কাটিয়ে আবারও তিনি ফিরে আসেন আইটিইউতে। কিন্তু কবে ঘরে ফিরবেন তিনি। এখনই নয়, তেমনটাই স্পষ্ট মেডিক্যাল বুলেটিনে। ভালো আছেন তিনি। শুনছেন রবীন্দ্র সঙ্গীত, কথাও বলছেন মাঝে মধ্যে। কিন্তু এরই মাঝে আবারও মাথা চারা দিয়ে উঠল তাঁর স্নায়ুর সমস্যা। 

 

মঙ্গলবার শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী বর্তমানে চালু করা হয়েছে স্টেরয়েড। গ্লাসগো কোমা স্কেল নেমে যাওয়ায় আবারও বেড়েছে ডাক্তার মহলের চিন্তা। এই সূচক সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের ৯-এ পৌঁচ্ছয়, যেখানে ৩-এই হতে পারে ব্রেন ডেথ। তাই তড়িঘড়ি চিকিৎসার দ্বায়িত্বে থাকা ১৬ জনের টিম স্টেরয়েডের সিদ্ধান্ত নেন। স্বাস্থ্যের উন্নতি আশা করলেও, দ্রুত আরোগ্য কামনা করলেও, এখনই ফিরছে না স্বস্তি। তবে শরীরের বাকি সমস্যাগুলো তুলনামূলকভাবে কম।