বিয়ের পর প্রথম পুজো বলে কথা। কোথায় কী বিতর্ক হচ্ছে বলে তো সিঁদুর খেলার আনন্দটা ছাড়া যায় না। যাবতীয় বিতর্ককে আমল না দিয়ে দশমীতেই সকলের সঙ্গে সিঁদুর খেলেছেন নুসরত। এবার তিনি পোস্ট করলেন স্বামীর নিখিল জৈনের হাত থেকে সিঁদুর পরার ছবি। ইনস্টাগ্রামে এই ছবি নুসরত জাহান পোস্ট করার পর থেকেই নেটিজেনদের মনে আলোড়নের সৃষ্টি হয়েছে। 

তোমরা আমাকে নিয়েই যতই বিতর্ক করো, গালমন্দ করো আমি আমার মতো আনন্দে থাকব। অনেকটা এই ঢঙেই মৌলবাদীদের যেন পালটা নিশানা করলেন অভিনেত্রী তথা সাংসদ নুসরত জাহান। যদিও তিনি মৌলবাদীদের বিরুদ্ধে একটা কথাও উচ্চারণ করেননি।  কিন্তু দুর্গাপুজো শুরু হওয়ার পর থেকেই মৌলবাদীরা যেভাবে বাক্যবাণ ছুড়তে শুরু করেছে, ইনস্ট্রাগ্রামে দশমীতে সিঁদুর খেলার পর স্বামীর সঙ্গে ছবি দেওয়া নুসরতের পালটা অবস্থান বলেই মনে করা হচ্ছে। 

কী করেছেন নুসরত? দশমীর দিন প্রথমবারের মতো সিঁদুর খেলে স্বামীর সঙ্গে ছবি ইস্টাগ্রামে পোস্ট করেছেন। স্বামী নিখিল জৈন  নুসরতকে সিঁদুর পরিয়ে দিচ্ছেন।  ছবিটাতে নিখিল জৈন যেন বলতে চাইছেন ঠিক যেন তোমার সিঁথিতে আমার সোহাগ। লাল পাড় শাড়ি সঙ্গে মানানসই সাজে নুসরত একেবারে অপরূপা। আর সাদা পাঞ্জাবীতে নিখিল জৈনকে দেখে মনে হচ্ছে  'মেড ফর ইচ আদার'। নুসরতের পাশাপাশি নিখিল জৈনও একটি ছবি ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেছেন। সেখানে কাঁধে ভালোবাসার স্পর্শ দিয়ে চোখে চোখ রেখে রয়েছেন নুসরত। 
 
হিন্দু পরিবারে বিয়ে করার পর থেকে বারবার নুসরত জাহান মৌলবাদীদের কোপে পড়েছেন। বারবার তিনি স্বামীর ধর্মকে আপন করতে চেয়েছন। তাই যাবতীয় বিতর্ককে দূরে সরিয়ে রেখেই তিনি স্বামীর সঙ্গে মেতে উঠেছিলেন দুর্গা পুজোয়। অষ্টমীতে ঢাক বাজানো হোক বা অঞ্জলি দেওয়া  নিয়েও কম বিতর্ক হয়নি। দশমীতে সিঁদুর খেলার পর তিনি মিষ্টি হেসে মৌলবাদীদের বিরুদ্ধে যাবতীয়  উত্তর দিয়ে দেন। তিনি বলেন, 'আমার মনে হয়, আমি ঈশ্বরের বিশেষ সন্তান, যাকে তিনি সম্প্রিতীর পাঠ পড়ানোর জন্য পঠিয়েছেন।'