টলিউডের পর্দায় প্রথম পা রাখা। এই স্মৃতি সহজে ভোলার নয়। টেলিভিশন থেকেই সফর শুরু হয়েছিল প্রিয়াঙ্কা সরকারের। আজ তিনি টলিউডের হট ডিভা। টেলিভিশন থেকেই প্রথম ছবির প্রস্তাব আসে। ছবির নাম চিরদিনই তুমি যে আমার। বাংলা ছবির জগতে এক ভিন্ন ধারার স্বাদ এনে দিয়েছিলেন পরিচালক রাজ চক্রবর্তী। প্রিয়াঙ্কাকে ডাকা হয়েছিল পার্শ্ব চরিত্রের জন্য। কিন্তু তাঁর অডিশন দেখে নির্বাচন করা হয় মূল চরিত্রে। 

আরও পড়ুনঃ সংকটে গোটা দেশ, সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দুই গ্রামকে দত্তক নিলেন জ্যাকলিন

এরপর ছবির শয্যুটিং শুরু। মাথা ফেটে যাওয়া থেকে শুরু করে ছোট খাটো ভুল ভ্রান্তি তারই মাঝে চলে শ্যুটিং পর্ব। রাহুল-প্রিয়াঙ্কা জুটির এই ছবি যেন সব দিক থেকেই সেরা হিসেবে গ্রহণ করে দর্শকেরা। ছবির গান থেকে শুরু করে গল্প। তবে পল্লবীর কৃষ্ণর প্রতি ভালোবাসা, বা কৃষ্ণের পল্লবীকে কাছে পাওয়ার চেষ্টা, সবই যেন সমসাময়িক তরুণ-তরণির মনে ঝড় তুলেছি। গল্পে ভেসেছিল কলেজ পড়ুয়ারা। 

আর সেই সূত্রেই অনেকেই মেনে নিতে পারেনি ছবির শেষ পরিণতী। রীতিমত প্রিয়াঙ্কার কাছে ফোন আসতে শুরু করে, তিনি কেন কৃষ্ণকে ছেড়ে অন্য কাউকে বিয়ে করেছেন। একই হুমকির ফোন পেয়েছিলেন রাজ চক্রবর্তীও। সেই স্মৃতি আজও ভোলেননি তাঁরা। চলতি বছরে তা সেই ছবি একযুগ পার করল। বর্তমানে এই ছবি দেখা যাবে হইচইতে। ভক্তদের তা আরও একবার দেখে নেওয়ার আর্জি জানালেন প্রিয়াঙ্কা সরকার।