বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়ার পাতা খুললেই একটাই শব্দ চোখে পড়ে- নেপোটিজম, যার অর্থ এক কথায় স্টারের ছেলে স্টার। কিন্তু নেপোটিজম কী শুধু বলিউডেই দেখা যায়, অন্য কোথাও নয়! প্রশ্ন তুলে এবার কলম ধরলেন রুদ্রনীল ঘোষ। অভিনেতার সাফ বার্তায় উঠে এলো একের পর এক বাস্তব চিত্র। নেপোটিজম জ্বরে যে সাধারণ মানুষও কাবু তা স্পষ্ট করে বুঝিয়ে দিলেন তিনি। নেপোটিজম আছে সর্বত্রই, তাই সমালোচনা করার আগে নিজের দিকটাও ভাবুন, বার্তা রুডির। 

আরও পড়ুনঃ 'সুশান্তের সঙ্গে ডেটিং নয়', সারাকে উপদেশ দিয়ে নেটিজেনদের নিশানায় করিনা

রুদ্রনীল ঘোষের কলমে দুদিন আগেই কড়া সমালোচনার শিকার হয়েছেন একশ্রেণীর সাধারণ মানুষ, এবার তিনি তোপ হানলেন নেটিজেনদের ওপর। নেপোটিজমের অর্থ কী, খোলসা করে বুঝিয়ে বললেন রুদ্রনীল এর কথায় সজন পোষণ। লাইনের শেষে দাঁড়িয়ে থাকা ব্যক্তিটা যখন পরিচিত পেয়ে সামনে এসে ধন্যবাদ জানান, সেটা নেপোটিজম নয়! একটা চাকরী চেয়ে ধন্যবাদ জানানোটা কী নেপোটিজম নয়, তবে শুধু বলিউডেই কেন নেপোটিজম নিয়ে এত চর্চা!

শিক্ষকের ছেলে শিক্ষক হলে, ডাক্তারের ছেলে ডাক্তার হলে কেন মানুষ প্রশ্ন তোলে না! রুদ্রনীলের কথায়, নেপোটিজম হয়তো জায়গা করে দেয়, কিন্তু মানুষকে সুপারস্টার করে তাঁর দক্ষতা। যদি নেপোটিজমই সবের মূল হত তবে কী এতদিনে অভিষেক বচ্চন সুপারস্টার হতেন না! তাই সমালোচনা করার আগে আরও একবার নিজের দিকটা ভেবে দেখার অনুরোধ জানিয়ে ভাইরাল হল রুদ্রনীলের কলম।