কেওড়াতলা মহাশ্মাশনে দেওয়া হচ্ছে গান স্যালুট। সন্ধে ৬.৪০ নাগাত পৌঁচ্ছল মরদেহ। রাস্তার ধারে বিপুল সংখ্যক মানুষের ভিড়। কেওড়াতলা মহাশ্মশানে মুখ্যমন্ত্রীর উপস্থিতিতে দেওয়া হল গান স্যালুট। উপস্থিত সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের মেয়ে পৌলমি চট্টোপাধ্যায়। চোখের জলে ভাসছে বাংলা। সংসারে অপু আর নেই। 

এক মিনিটের নিরবতা পালন করা হল। রাজ্যের তরফ থেকে এদিন কিংবদন্তী অভিনেতাকে রাষ্ট্রীয় সন্মানে জানানো হল শেষ বিদায়। উপস্থিত রয়েছেন বহু টলিউডের তারকারা। হাজার হাজার মানুষ এদিন সামিল হন রবীন্দ্রসদন থেকে কেওড়াতলা মহাশ্মাশানের পথে। প্রবেশদ্বার দিয়ে দেহ ঢুকিয়ে নেওয়ার পর সকলকে বাইরে আটকে দেওয়া হয়। সেখান থেকেই হাজার হাজার অনুরাগীরা সামিল শেষ যাত্রায়। 

শেষ বিদায় সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, চির নিদ্রায় বাংলার কিংবদন্তী অভিনেতা। দীর্ঘ লড়াই শেষ করে আজ তিনি শান্তির নিদ্রায়। তাঁর প্রিয় গান আগুনের পরশমণির মধ্যে দিয়েই শেষ বিদায়। মেয়ে পৌলমি এদিন বাবার মাথায় হাত বুলিয়ে দিয়ে শেষ বিদায় জানাচ্ছেন বাবাকে।